চৌগাছায় অজ্ঞাত মহিলার লাশ টি প্রবাসীর স্ত্রীর

জি এম নিউজ জি এম নিউজ

বাংলার প্রতিচ্ছবি

প্রকাশিত: ৭:৪২ অপরাহ্ণ, নভেম্বর ১৯, ২০১৮ | আপডেট: ৭:৪২:অপরাহ্ণ, নভেম্বর ১৯, ২০১৮
চৌগাছা সংবাদদাতা :
চৌগাছায় যে মরদেহটি উদ্ধার হয়েছিল, সেটি তাসলিমা খাতুন (৩৫) নামে এক নারীর। তিনি শার্শা উপজেলার ডিহি ইউনিয়নের রঘুনাথপুর গ্রামের মালয়েশিয়া প্রবাসী বিল্লাল হোসেনের স্ত্রী এবং একই এলাকার ট্যাংরালী গ্রামের আব্দুল রাজের মেয়ে।
সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ছবি দেখে ওই নারীর বাবা আব্দুল রাজসহ স্বজনরা সোমবার চৌগাছা থানায় এসে লাশটি শনাক্ত করেন।
ভাইয়ের স্ত্রী ফরিদা বেগম জানান, চার সন্তানের জননী তাসলিমার স্বামী মালয়েশিয়া থাকেন। স্বামী বিল্লাল প্রবাসে থাকলেও ঠিকমতো টাকা পাঠান না। স্বামী দীর্ঘদিন প্রবাসে থাকায় তাসলিমা একটু বেপরোয়া চলাফেরা করতেন। কিছুদিন আগে তার বড় ছেলে শাওন (১৮) মারা যায়।
তিনি আরো জানান, সংসারের খরচ যোগাতে তিন সন্তানকে স্বামীর বাড়ি রঘুনাথপুর রেখে ঝিকরগাছা উপজেলা শহরে খালা আনোয়ারা বেগমেরর বাড়িতে থেকে কোনো একটি হোটেলে কাজ করতেন তাসলিমা।
তবে খালা আনোয়ারা বেগম জানান, তাসলিমা কোন হোটেলে কাজ করতেন, তা তার জানা নেই। গত ১৭ নভেম্বর শনিবার সকালে খালার বাড়ি থেকে কাজের জন্য বের হয়ে আর ফিরে যাননি তিনি।
বাবা আব্দুল রাজ বলেন, ‘জামাই বিদেশ থাকার কারণে মেয়ে চলাফেরায় একটু অবাধ্য ছিল। আমি বাধা দেওয়ায় আমার সাথে যোগাযোগ কম করত সে।’
ডিহি ইউনিয়ন পরিষদের মেম্বার মফিজুল ইসলাম বলেন, ‘মেয়েটি হঠাৎই একটু বেপরোয়া হয়ে যায়। সে পরিবারের অবাধ্য ছিল বলে জেনেছি। এর বেশি কিছু জানি না।’
সোমবার দুপুরে চৌগাছা থানায় তাসলিমার স্বজনরা জানান, তার শ্বশুরবাড়িতে খবর দেওয়া হয়েছে। তবে এখন পর্যন্ত কেউ আসেনি।
চৌগাছা থানার সহকারী উপ-পরিদর্শক (এএসআই) ও মামলাটির তদন্তকারী কর্মকর্তা জামাল উদ্দীন বলেন, লাশের কাছ থেকে উদ্ধার হওয়া মোবাইলে সিম কার্ড ছিল না। তবে ফোনটিতে আবু বক্কর নামে একটি নম্বর সেভ ছিল। নম্বরটিতে কল দিলে এক ব্যক্তি নিজেকে মণিরামপুরের বাসিন্দা বলে পরিচয় দেন। তার দেওয়া ঠিকানা অনুযায়ী রোববার রাতেই মণিরামপুরে অভিযান চালালেও কাউকে বাড়িতে পাওয়া যায়নি। বাড়িটি তালাবদ্ধ ছিল।
চৌগাছা থানার সেকেন্ড অফিসার উপ-পদির্শক (এসআই) এসএম আকিকুল ইসলাম বলেন, ‘হত্যাকারীদের শনাক্ত করে আটকের চেষ্টা চলছে। খুব শিগগির তাদের আটক করা সম্ভব হবে বলে আশা করছি। তদন্তের স্বার্থে এর বেশি কিছু বলা যাবে না।’
গত রোববার বিকেল সাড়ে চারটায় উপজেলার নারায়ণপুর ইউনিয়নের বাদেখানপুর গ্রামের পশ্চিম পুকুর মাঠের আমজেদ আলীর ধানক্ষেতে কালো বোরকা পরিহিত অজ্ঞাত এক নারীর লাশ পড়ে থাকতে দেখে স্থানীয়রা পুলিশে খবর দিয়েছিলেন।