একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচন ক্লিন ইমেজের কারণে মনোনয়ন নিয়ে আত্মবিশ্বাসী টুকু

প্রকাশিত: ৫:৫৫ অপরাহ্ণ, নভেম্বর ৭, ২০১৮ | আপডেট: ৮:০৩:অপরাহ্ণ, নভেম্বর ৭, ২০১৮

আব্দুল্লাহ আল নোমান আমতলী বরগুনা প্রতনিধি।।

জনপ্রিয় বক্তা হিসেবে তুমুল আলোচিত এবং ক্লিন ইমেজের কারণে বরগুনা-১ আসনে আওয়ামীলীগের দলীয় মনোনয়নের ব্যাপারে দারুণ আশাবাদী জেলা আওয়ামীলীগের সাংগঠিনক সম্পাদক গোলাম সরোয়ার টুকু। ইতোমধ্যেই নির্বাচনী-প্রচার প্রচারণায় সরব হয়েছেন সাবেক এই সফল ছাত্রনেতা। তরুণ প্রজন্মের মাঝেও ভীষণ জনপ্রিয় আওয়ামীলীগের বর্তমান এই সাংগঠিনক সম্পাদক। এছাড়াও সাংগঠনিকভাবেও যিনি মাঠপর্যায়ের নেতাকর্মীদের কাছে সমান জনপ্রিয়।

বঙ্গবন্ধুর স্বপ্নের সোনার বাংলার দৃঢ় প্রত্যয় নিয়ে এবং শেখ হাসিনার উন্নয়ন বার্তা ঘরে ঘরে পৌঁছে দিতে দিনরাত সভা-সমাবেশ ও উঠান বৈঠক করে যাচ্ছেন। জনপ্রিয়তার মাধ্যমে জয়লাভ করতেই মাঠ পর্যায়ে সভা-সমাবেশসহ ব্যাপক গণসংযোগ চালাচ্ছেন তিনি। মাঠপর্যায়ের সক্রিয় এই নেতা নিকট ভবিষ্যতে এলাকার উন্নয়ন কর্মকা-ে নিজেকে আরো সক্রিয় রাখতে আওয়ামীলীগের সম্ভাব্য প্রার্থীদের তালিকায় বেশ উপরের সারিতেই রয়েছেন বলে বিভিন্ন মাধ্যমে আলোচনা শোনা যাচ্ছে। আওয়ামীলীগের নৌকার মাঝি হতে সব ধরণের কার্যক্রমই চালিয়ে যাচ্ছেন তিনি।

সব শ্রেণি-পেশার মানুষের কাছে এক অনুকরণীয়, মেধাবী ও সৃজনশীল পরিচ্ছন্ন রাজনীতিবিদ হিসেবে পরিচিত গোলাম সরোয়ার টুকু। তুখোর বক্তা হিসেবেও পরিচিত তিনি। এ কারণে সবার কাছে তিনি অত্যন্ত জনপ্রিয় ব্যক্তি হিসেবে ভালোবাসার মানুষে পরিণত হয়েছেন।

টুকু ছাত্রজীবনে বরগুনা সরকারি কলেজ শাখা ছাত্রলীগের সভাপতি এবং পরপর দু’বার ওই কলেজ ছাত্র সংসদের সহসভাপতি (ভিপি) নির্বাচিত হন। পরে তিনি জেলা ছাত্রলীগের সভাপতিও নির্বাচিত হন।

স্বৈরাচার এরশাদবিরোধী ‘৯০-এর ছাত্র আন্দোলনেও বরগুনায় নেতৃত্ব দিতে গিয়ে কারাবরণ করেন টুকু। তিনি কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগের সহ-সাংগঠনিক ও পরে পরিবেশবিষয়ক সম্পাদক নির্বাচিত হয়ে দেশের সব জেলা-উপজেলায় ঘুরে ঘুরে ছাত্রলীগকে সুসংগঠিত করার ক্ষেত্রে অনন্য অবদান রাখেন। ২০০৫ সালে জেলা আওয়ামী লীগের জ্যেষ্ঠ সাংগঠনিক সম্পাদক নির্বাচিত হয়ে বর্তমান সময় পর্যন্ত দলকে শক্তিশালী করার ক্ষেত্রে গুরুত্বপূর্ণ অবদান রেখে চলেছেন এ নেতা। জননেত্রী শেখ হাসিনার ক্ষুধা ও দারিদ্র্যমুক্ত বাংলাদেশ গড়ার নিবিড় কারিগর গোলাম সরোয়ার টুকু এখন এ জনপদের মাটি ও মানুষের অনবদ্য নেতা। তরুণ প্রজন্মের আলোকবর্তিকা। বঙ্গবন্ধুর সুমহান আদর্শে অনুপ্রাণিত এ রাজনীতিক বরগুনা-আমতলী-তালতলী উপজেলার প্রত্যন্ত এলাকার মানুষের কাছে এখন আস্থা ও ভরসার প্রতীক।

তালতলী উপজেলার শারিকখালী ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি ও ইউপি চেয়ারম্যান মো. আবুল বাসার বাদশা তালুকদার বলেন, গোলাম সরোয়ার টুকু একজন ত্যাগী, সাহসী ও পরিচ্ছন্ন নেতা। তাকে বরগুনা-১ আসনে মনোনয়ন দেওয়া হলে বিপুল ভোটে বিজয়ী হবেন।

আমতলী উপজেলা আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক রেজাউল করিম শাহজাদা আকন বলেন, গোলাম সরোয়ার একজন সৎ, মেধাবী ও তরুণ আওয়ামী লীগ নেতা। তার রয়েছে ব্যাপক জনপ্রিয়তা। তাকে মনোনয়ন দেওয়া হলে র্নিদ্বিধায় তিনি এমপি নির্বাচিত হবেন।

গোলাম সরোয়ার টুকু বলেন, বঙ্গবন্ধুর স্বপ্নের সোনার বাংলা বাস্তবায়ন করতে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা নিরলস পরিশ্রম করে যাচ্ছেন। ১/১১-এর সরকারের সময় জননেত্রী কারাগারে থাকার সময় তার মুক্তি আন্দোলনে নেতৃত্ব দিয়েছি। আশা করি জননেত্রী শেখ হাসিনা এই এলাকার জনগনের আবেগ ও মনোভাবকে প্রাধান্য দিয়ে আমাকে মনোনয়ন দেবেন। আমাকে মনোনয়ন দেওয়া হলে আমি বিজয়ী হব ইনশাআল্লা।