আগৈলঝাড়ায় সেই ইউএনও লাঞ্চিত কারী পিয়াল সেরনিয়াবাত’র সন্ত্রাসী তান্ডব ॥ যুবক আহত !

জি এম নিউজ জি এম নিউজ

বাংলার প্রতিচ্ছবি

প্রকাশিত: ৯:৩৪ অপরাহ্ণ, অক্টোবর ২৪, ২০১৮ | আপডেট: ৯:৩৫:অপরাহ্ণ, অক্টোবর ২৪, ২০১৮

পূর্ব শত্রুতার জের ধরে আগৈলঝাড়ার ফুলশ্রিরি গ্রামে এক যুুবককে পিটিয়ে ও কুপিয়ে গুরুতর জখম করেছে সন্ত্রাসীরা । আহত যুবককে শের-ই বাংলা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। সে হাসপাতালের বেডে মৃত্যুর সাথে লড়াই করছে। আহতের নাম মোঃ রাসেল পাইক সে ঐ গ্রামের বাসিন্ধা মৃত মোঃ আইয়ূব আলি পাইক এর ছেলে।

আহত সুত্রে জানা গেছে, ঐ গ্রামের রাসেল পাইক (৩৫)’র সাথে একই গ্রামের পিয়াল সেরনিয়াবাত , সিরাজ পাইক, লাল মিয়া পাইক ও মাসুদ হাওলাদার এর সাথে জমি সংক্রান্ত বিরোধ নিয়ে দীর্ঘ দিন ধরে পূর্ব শত্রুতা চলে আসছিলো। সেই সূত্র ধরে ঘটনার দিন সকাল ১০ টায় রাসেল আগৈলঝাড়া ডাচ বাংলা বুথ থেকে নগদ ৫০ হাজার টাকা তুলে বাজারের উদ্দেশ্যে রওয়ানা হয়। পথিমধ্যে ওৎ পেতে থাকা সন্ত্রাসী পিয়াল সেরনিয়াবাত এর নেতৃত্তে সিরাজ পাইক , লালমিয়া পাইক ও মাসুদ হাওলাদার সহ অজ্ঞাত আরো ৪/৫ জনে মিলে রাসেলকে খুন করার উদ্দিশ্যে পূর্ব পরিকল্পিত ভাবে হকস্টিক দিয়ে পেটায়। পরে রামদা দিয়ে এলোপাথারি কুপিয়ে রক্তাক্ত জখম করে। তার ডাক চিৎকার শুনে স্থানীরা ঘটনা স্থলে ছুটে গিয়ে আহতকে গুরুতর অবস্থায় উদ্ধার করে তাৎক্ষনিক বরিশাল শেবাচিম হাসপাতালে ভর্তি করে। সে হাসপাতালের বেডে মৃত্যুর সাথে লড়াই করছে। তার অবস্থা আশংকা জনক বলে জানান, ঐ ইউনিটের কর্তব্যরত চিকিৎসকরা।

আহতের পরিবার জানায়, ঘটনার সময় তার পকেটে থাকা ডাচ বাংলা বুথ থেকে উত্তোলন করা নগদ ৫০ হাজার টাকা ও দুইটি উন্নত মানের মোবাইল ফোন ছিনিয়ে নেয় সন্ত্রাসীরা। এবং প্রতিপক্ষকে ঘায়েল করার জন্য পিয়াল সেরনিয়াবাত রহস্য জনক ভাবে নিজের শরীরে আঘাত করে শেবাচিম হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছে। আহতের পরিবার আরো জানায় , পিয়াল সেরনিয়াবাত ২০১৭ সালের আগৈলঝাড়া শহীদ আব্দুর রব সেররিয়াবাত ডিগ্রি কলেজের এইচএসসি পরীক্ষার কেন্দ্রে পরীক্ষা দিতে যায়।

এ সময় কর্তব্যরত (ইউএনও) উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা গাজী তারেক সালমান পিয়ালের শরীর তল্লাশী করে নকল উদ্ধার করে এবং সেই অপরাধে পিয়ালকে পরিক্ষার হল থেকে বের করে দেয়। পরীক্ষার শেষে ইউএনও কে পিয়াল ও তার দলবল নিয়ে লাঞ্চিত করে।

এ ব্যপারে আগৈলঝাড়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মোঃ আবজাল হোসেন জানান, বিষয়টি আমি শুনেছি তবে, আমার কাছে লিখিত কোন অভিযোগ আসেনি। অভিযোগ আসলে অবস্যই আইনানুগ ব্যবস্থা নিব।