কীভাবে আটকাবেন নিজের কান্না?

জি এম নিউজ জি এম নিউজ

বাংলার প্রতিচ্ছবি

প্রকাশিত: ৮:৫২ পূর্বাহ্ণ, অক্টোবর ২৪, ২০১৮ | আপডেট: ৮:৫২:পূর্বাহ্ণ, অক্টোবর ২৪, ২০১৮

কান্না পাওয়া বা কান্নাকাটি করা খুবই সাধারণ একটি ব্যাপার। এটা সুস্থতারই লক্ষণ। কিন্তু অনেকেই অন্যের সামনে কাঁদতে চান না। প্রকাশ্যে কান্নাকাটি করাকে অনেকে আবার দুর্বলতার লক্ষণ বলে মনে করেন। কিন্তু হঠাৎ করে কান্না পেয়ে গেলে আটকানোর উপায়ও রয়েছে অনেক। বিশেষজ্ঞরা জানাচ্ছেন সেই পথ।

পিটসবার্গ ইউনিভার্সিটির মনোবিজ্ঞান বিভাগের সহকারী অধ্যাপক লরেন বিলসমা, ওয়াশিংটনের বডি ল্যাঙ্গুয়েজ ইনস্টিটিউটের চিফ এক্সিকিউটিভ জ্যানাইন ড্রাইভার, মনোরোগ বিশেষজ্ঞ থেরেসা নুয়েন জানিয়েছেন নিজের কান্না নিজেই থামাবেন কীভাবে-

১। ইমোশনাল রিসেট বোতাম-

জিভ উল্টে মুখের ভিতরের উপরিভাগে চাপ দিন। কান্না আসলেও তা থেমে যাবে।

২। মুখের মাংসপেশি শিথিল করুন-

যদি খুব দুঃখ পেয়ে থাকেন, তা হলে নাকের উপরের দিকে ভ্রু জোড়া ধরে টানুন ও উপরের দিকে তুলুন। এতে মাংসপেশি শিথিল হয়ে চোখের পানি আটকে দেবে।

৩। গভীর শ্বাস নিন-

শ্বাস-প্রশ্বাসের উপর মনোযোগ দিলেও নিজের আবেগকে নিয়ন্ত্রণ করতে পারেন। নাক দিয়ে লম্বা শ্বাস নিন চার সেকেন্ড ধরে। দুই সেকেন্ড ধরে রাখুন। তার পরে মুখ দিয়ে আট সেকেন্ড ধরে সেই শ্বাস ছাড়ুন।

৪। চিমটি কাটুন-

যদি পারেন লুকিয়ে বুড়ো আঙুল ও তর্জনীর মাঝের ত্বকে জোরে চিমটি কাটুন। নিমেষে কান্না থেমে যাবে।

তবে একই সঙ্গে বিশেষজ্ঞরা বলছেন, যদি আপনি আগে থেকেই বুঝতে পারেন এইরকম কোনও পরিস্থিতি আসছে, যেখানে কান্না পেয়ে যেতে পারে বা কোনও ব্যক্তির সঙ্গে দেখা করতে গিয়ে কেঁদে ফেলতে পারেন, তাহলে আগে থেকেই একা একা কেঁদে নিন। তাতে মন অনেকটা হালকা হয়ে যাবে। স্বাভাবিক ভাবেই সেই ব্যক্তি বা পরিস্থিতির মোকাবিলা করতে পারবেন আপনি।

  • বিডি-প্রতিদিন