বাইসাইকেলে বরযাত্রী!

জি এম নিউজ জি এম নিউজ

বাংলার প্রতিচ্ছবি

প্রকাশিত: ৭:৪৮ পূর্বাহ্ণ, অক্টোবর ১৮, ২০১৮ | আপডেট: ৭:৪৮:পূর্বাহ্ণ, অক্টোবর ১৮, ২০১৮

১৭ অক্টোবর বুধবার দুপুরে শহরের সাদিয়া কমিউনিটি সেন্টারে অনুষ্ঠিত হয়েছে শহরের বড়হাটের মরহুম আশরাফ আলী ও রুবেনা সুলতানা দম্পতির দ্বিতীয় সন্তান ও মৌলভীবাজার শহরের ‘শাদী মোবারক ইভেন্ট ম্যানেজমেন্টের’ সত্ত্বাধিকারী আহমদ আলী ছায়েম ও সদর উপজেলার মনুমুখ ইউনিয়নের মোজাফরাবাদ গ্রামের সজিব মিয়া ও হাজেরা বেগম দম্পতির দ্বিতীয় কন্যা সোনিয়া সুলতানা রুমার বিয়ে। বর সাইক্লিং কমিউনিটির অ্যাডমিন। আর তাই বরযাত্রা গেছে বাইসাইকেলে! বরের অবশ্য আফসোস রয়ে গেছে, কনেকে সাইকেলে চড়িয়ে বাইয়ে নিতে পারেননি বলে!

মৌলভীবাজার পৌর শহরের ঢাকা-সিলেট আঞ্চলিক মহাসড়কের কুসুমবাগ এলাকার সড়কে র‍্যালির মতো করে যেতে থাকা ‘বাইসাইকেল বড় যাত্রার’ দৃশ্য চোখে পড়ে। একই ধরণের সাজে বেশ কয়েকটি বাইসাইকেল ও চালক থাকায় দৃষ্টি কাড়ে সবার। এমন দৃশ্য দেখে কৌতুহল জাগে পথচারী ও নানা শ্রেণী-পেশা মানুষের মধ্যে।

বাইসাইকেলে বরযাত্রী যারা ছিলেন তাদের পাঞ্জাবী,পাজামা,পাগড়ি আর ফুলের মালা ছিল বরেরই মতো। তবে বরের সাইকেলের সাথে তাদের সাইকেলের ভিন্নতা ছিল। বরের সাইকেলের চাকা ছিল অন্য সাইকেলগুলোর চেয়ে একটু বড়। র‍্যালির পেছনের সারিতে বয়স্ক পুরুষ ও মহিলাদের জন্য ছিল কয়েকটি গাড়ি।

বড় চাকার বাইসাইকেল চড়ে যেতে থাকা পাগড়ীওয়ালা চালক হেসে বলছিলেন, ‘আমি নিজেই বর, কনে আনতে যাচ্ছি।’ বরের সাথে বেশ কয়েকজন তাকে প্রটোকলে দিয়ে পাশে পাশে বাইসাইকেল চালিয়ে যাচ্ছিলেন। বর আহমদ আলী ছায়েম বললেন, ‘ব্যতিক্রমধর্মী আয়োজনের ইচ্ছে ছিল। মৌলভীবাজার সাইক্লিং কমিউনিটির আমার প্রিয়জনরা তা বাস্তবায়নে সহযোগিতা করেছেন। তবে পুরো ইচ্ছা পূরণ হয়নি। কারণ নতুন বউকে সাইকেলে করে নিয়ে যেতে পারিনি।’

মৌলভীবাজার সাইক্লিং কমিউনিটির এডমিন ইমন আহমেদ জানিয়েছন: বর আমাদের সাইক্লিং কমিউনিটির অ্যাডমিন। আমাদের শ্লোগানই হচ্ছে ‘সুস্বাস্থ্যের জন্য সাইকেলিং।’ পরিবেশ বান্ধব সাক্লিংয়ে আমরা সবসময়ই তরুণ ও যুব সমাজকে উৎসাহিত করি। আমাদের লক্ষ্য তরুণ ও যুব সমাজকে মাদকমুক্ত রেখে দেশপ্রেমে উদ্বুদ্ধ করা ও কর্মচঞ্চল রাখা।’ মৌলভীবাজার জেলায় এটাই এমন প্রথম আয়োজন দাবি করে বরপক্ষ জানিয়েছে, সাইক্লিংয়ের প্রতি মানুষকে আকৃষ্ট করতেই তাদের এমন উদ্যোগ।