ডুবে গেছে শাহপরীর দ্বীপের শতাধিক ঘর

জি এম নিউজ জি এম নিউজ

বাংলার প্রতিচ্ছবি

প্রকাশিত: ১০:১৯ পূর্বাহ্ণ, অক্টোবর ১২, ২০১৮ | আপডেট: ১০:১৯:পূর্বাহ্ণ, অক্টোবর ১২, ২০১৮

ঘূর্ণিঝড় ‘তিতলি’র প্রভাবে জোয়ারের পানি অস্বাভাবিক বেড়ে যাওয়ায় কক্সবাজারের টেকনাফ উপজেলার শাহপরীর দ্বীপডুবে যাচ্ছে বলে খবর পাওয়া গেছে। গত দু’দিনে তলিয়ে গেছে মসজিদসহ শতাধিক ঘরবাড়ি।

এর মধ্যে বৃহস্পতিবার সকাল থেকে বিকেল পর্যন্ত ডুবেছে অর্ধশতাধিক ঘর। এসব ঘরের লোকজন টেকনাফসহ অন্যত্র আশ্রয় নিয়েছে। স্থানীয় বাসিন্দাদের আশঙ্কা, বৃষ্টিপাত অব্যাহত থাকলে তলিয়ে যাবে দ্বীপের মাঝারপাড়া ও দক্ষিণপাড়ার আরও দুই শতাধিক ঘর।

এ প্রসঙ্গে টেকনাফের শাহপরীর দ্বীপ ইউনিয়ন পরিষদের ৭ নং ওয়ার্ড সদস্য নুরুল আমিন বলেন, সাগরের জোয়ারের পানিতে দ্বীপের মাঝারপাড়া ও দক্ষিণপাড়ার শতাধিক ঘরবাড়ি পানিতে তলিয়ে গেছে। পাঁচ বছর আগে দ্বীপের পশ্চিম দিক থেকে তিন কিলোমিটার বাঁধ ভেঙে যায়। তারপর থেকে পানিবন্দি অবস্থায় আছে ওই দ্বীপের বাসিন্দারা।

তিনি আরো জানান, এ দ্বীপের লোকসংখ্যা ৪০ হাজার। ইতিমধ্যে এখানকার পাঁচ হাজারেরও বেশি পরিবার দ্বীপ ছেড়ে অন্যত্র চলে গেছে। এই অবস্থা অব্যাহত থাকলে দিনে দিনে জনশূন্য হয়ে পড়বে দ্বীপটি। এ ছাড়া খোলা বাঁধ মেরামত করা নাহলে আগামী কয়েক দিনের ভেতর সাগরে বিলীন হয়ে যেতে পারে আরও শতাধিক ঘর।

দ্বীপের বেড়িবাঁধ নির্মাণের জন্য ১০৬ কোটি টাকা বরাদ্দ দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী যা দিয়ে ইতিমধ্যে আংশিক কাজ সম্পন্ন হয়েছে। দ্রুত গতিতে খোলা থাকা বাঁধগুলো নির্মাণ করা না গেলে পুরো দ্বীপ সাগরে তলিয়ে যাবে বলেও জানান এই ইউনিয়ন সদস্য।