সংসদ নির্বাচনে বরিশালের ৭টি আসনে বিএনপির প্রার্থী চূড়ান্ত

জি এম নিউজ জি এম নিউজ

বাংলার প্রতিচ্ছবি

প্রকাশিত: ১০:৫৮ পূর্বাহ্ণ, সেপ্টেম্বর ১৪, ২০১৮ | আপডেট: ১০:৫৮:পূর্বাহ্ণ, সেপ্টেম্বর ১৪, ২০১৮

একাদশ সংসদ নির্বাচনে অংশ নেবে কিনা- সে বিষয়ে সিদ্ধান্ত না নিলেও ১১৫ আসনে প্রার্থী চূড়ান্ত করেছে বিএনপি। এর মধ্যে বরিশাল বিভাগের ২১ আসনের ৭টিতে চূড়ান্ত প্রার্থী ঘোষণা করা হয়েছে। একাধিক জরিপে এসব আসনে বড় ধরনের কোনো ঝামেলার তথ্য পায়নি দলটি।

দেশব্যপী চালানো জরিপ এবং পঞ্চম, অষ্টম ও নবম জাতীয় সংসদ নির্বাচনের ফল বিশ্লেষণ করে আসনগুলোতে একক প্রার্থী চূড়ান্ত করা হয়েছে। আন্দোলনকেই প্রধান টার্গেট করে এসব প্রার্থীর পরিকল্পনা অনুযায়ী ওই সংসদীয় আসনে সংগঠন গোছানো হচ্ছে। লন্ডন ও গুলশান কার্যালয় সূত্র এসব তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

এ নিয়ে বিএনপি নীতিনির্ধারণী পর্যায়ের কোনো নেতা নাম প্রকাশ করে কথা বলতে রাজি হয়নি। তবে নাম প্রকাশ না করার শর্তে একাধিক নীতিনির্ধারক বলেন, যেসব আসনে বড় ধরনের কোনো ঝামেলা নেই সেখানে একক প্রার্থীর একটি তালিকা করা হয়েছে। সেই তালিকা অনুযায়ী প্রার্থীর কাছে ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমান টেলিফোন করে বার্তা দিচ্ছেন।

ওই নীতিনির্ধারক আরও জানান, যেসব আসনে কমপক্ষে ৩ থেকে সর্বোচ্চ ৭ জন প্রার্থী আছেন সেখানে ঝামেলা হচ্ছে। লন্ডনে চিকিৎসাধীন দলের ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমানের নির্দেশনায় দায়িত্বশীল নেতারা এগুলো নিয়ে কাজ করছেন। তবে ২০ দলীয় জোটের শরিক ও ঐক্য প্রক্রিয়ায় যুক্ত দলগুলোর সম্ভাব্য প্রার্থীদের আসনে বিএনপি নিজ দলের কাউকে মনোনয়ন দেবে না বলেও জানান তিনি।

দলীয় সূত্রে জানা গেছে, নির্বাচন ঘিরে ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান একাধিক জরিপ চালিয়েছেন। জরিপে এগিয়ে থাকা প্রার্থী, বিগত তিনটি জাতীয় নির্বাচনের ফল এবং প্রার্থীর রাজনৈতিক অবস্থা বিবেচনা করে সবুজ সংকেতও দেয়া হচ্ছে।

মনোনয়নের নিশ্চয়তা পাওয়া প্রার্থীদের পরিকল্পনামতো সংশ্লিষ্ট সংসদীয় আসনের সংগঠন গোছানো হচ্ছে। তাদের কঠোর আন্দোলনের প্রস্তুতির বার্তা দেয়া হচ্ছে। পাশাপাশি নির্বাচনের প্রস্তুতিও নিতে বলা হচ্ছে।

জানতে চাইলে বিএনপির সাংগঠনিক সম্পাদক রুহুল কুদ্দুস তালুকদার দুলু বলেন, চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার মুক্তি ও নির্বাচনকালীন নিরপেক্ষ সরকারের দাবি আদায়ে আন্দোলনের কোনো বিকল্প নেই। এবার বেশিদিন নয়, স্বল্প সময়ের আন্দোলনেই দাবি আদায় করা হবে। পাশাপাশি নির্বাচনের জন্যও প্রস্তুতি রয়েছে।

৩০০ আসনে মনোনয়ন প্রত্যাশীদের অবস্থা ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমানের কাছে আছে। তিনি জরিপ চালিয়েছেন। যেখানে প্রার্থী প্রায় নিশ্চিত, বড় কোনো ঝামেলাও নেই সেখানে একজনকে আন্দোলন ও নির্বাচনের জন্য প্রস্তুতি নিতে বলা হচ্ছে। তিনি সরাসরি ফোন করে এ নিয়ে কথা বলছেন।

চূড়ান্ত হওয়া তালিকায় থাকা ১১৫ আসনের মধ্যে বরিশালের আসনগুলো হলো, বরগুনা-২ অ্যাডভোকেট খন্দকার মাহবুব হোসেন, পটুয়াখালী-১ এয়ার ভাইস মার্শাল (অব.) আলতাব হোসেন চৌধুরী, পটুয়াখালী-৪ এবিএম মোশাররফ হোসেন, ভোলা-৩ মেজর (অব.) এম হাফিজউদ্দিন আহমেদ, ভোলা-৪ নাজিমউদ্দিন আলম, বরিশাল-৫ মজিবর রহমান সরোয়ার, ঝালকাঠি-১ ব্যারিস্টার শাহজাহান ওমর। বরিশালের এই ৭টি আসনে একক প্রার্থী ঘেষণা করেছে বিএনপি।

অন্যান্য আসনগুলোতে একাধিক প্রার্থী ও ঝামেলা থাকায় তা চূড়ান্ত করা হয়নি। বরিশালের চূড়ান্ত তালিকায় থাকা প্রার্থীদের নাম পরিবর্তনের কোন সম্বাবনা নেই।