“সন্তাপ ”

জি এম নিউজ জি এম নিউজ

বাংলার প্রতিচ্ছবি

প্রকাশিত: ৪:২১ অপরাহ্ণ, সেপ্টেম্বর ১, ২০১৮ | আপডেট: ৪:২৩:অপরাহ্ণ, সেপ্টেম্বর ১, ২০১৮

“সন্তাপ ”

মুহাম্মদ হাসান মাহমুদ ইলিয়াস

দিনমণির আলোয়
দিনটি হয়ত কেটে যাবে ভালোয়।
যখন আসবে নিশির আঁধার
তখন পরবে মনে স্মৃতিগুলো আমার।
তাকাবে দূর গগনে
খুঁজবে আমায় অগনিত তারকার মধ্যখানে
দেখবে যখন স্নিগ্ধ জ্যোৎস্না
কিছুই ভালো লাগবেনা
করবে শুধু ভরতসনা
যেদিন চলে যাব দূর অজানায়
বুজবে সেদিন বুজবে
কি যে জ্বালা বিরহ ব্যথায়।
*******
শরীর জুড়াতে আসবে মৃদু মলয়
মনে পড়বে আমার কথা
কত গল্প করেছি দুজনায়
গ্রীষ্মের ‘সে রৌদ্রদগ্ধ দিনগুলোয়

যখন আসবে বর্ষার দিন
ঝরবে অঝোর বৃষ্টি
পড়বে মনে আমায় সে যে ছাতা হাতে
ছুটে যেতাম তোমার ঐ ভার্সিটি।
দাঁড়িয়ে থাকতাম গেটের সামনে ভিক্ষুকের মত
কখন হবে ক্লাস শেষ আর দেরি কত……

মাত্র একটি ছাতা ছিল আমার
আমি যদি ভাগ নেই
শরীরটা যে ভিজে যাবে তোমার,
ছাতাটি দিতাম তোমার হাতে
বৃষ্টিকে সঙ্গী করে পথ চলতাম
বৃষ্টি আর আমি এক সাথে ।

তবু কখনো তুমি ভিজনায়।
যখনই ঝরবে বৃষ্টি অঝোর ধারায়
বুঝবে তখনি বুঝবে
কি যে কষ্ট আমার নীরবতায়।
*******
কভু দিওনা ব্যথা আমায়
চলে যাবো দূর অজানায়
আর পাবেনা খুঁজে আমায়
বুঝবে সেদিন আমার নীরবতায়
কি যে জ্বালা বিরহ ব্যথায় ।
******
দুপুর গড়িয়ে ছায়া ঢাকা বিকেলে
বেড়াতে যাবে সকলে তোমায় একা ফেলে
ঐ স্রোতস্বিনীর কিনারায়
উত্তাল ঊর্মি ,অ¤॥^রে বিহগ
আর জেলেদের নানাবিধ কর্ম দেখে
তারা সেথা বিকেল কাটায় ।

তখনই পড়বে মনে
একদা আমরাও বেড়াতে যেতাম দুজনে
ঘুরে বেড়াতাম কত দূর থেকে দূরে
অবশেষে বসতাম ঐ স্রোতস্বিনীর পাড়ে
যতখন সূর্য না অস্ত যায়
ততক্ষণ বসে থাকতাম
কখনো বা চাঁদ ওঠা জ্যোৎস্নায় ।

দেখবে যখন কেউ তোমাকে বেড়াতে না নিয়ে যায়
বুঝবে তখন বুঝবে
কি যে জ্বালা বিরহ ব্যথায় ।
*******
আবার যবে দেখবে অন্যের মেহেদী রাঙ্গা হাত
খুলে যাবে তখন তোমার স্মৃতির ফাঁদ ।

যখনই দেখতাম আমি তোমার মেহদী লাগানো হাত
রঙ কাঁচা থেকে যাবে ভেবে
কত যতনে তোমায় আমি খাইয়ে দিতাম ভাত
আর দুষ্টুমি করে তুমি কাঁমড়ে দিতে আমার হাত,
খাওয়া শেষে মুছে দিতাম তোমার মুখ
একটু মুচকি হাসি দিতে
তখন কি যে পেতাম সুখ !
তবে আর যখন তোমার সাথে কেউ এমন পাগলামো করবেনা
কেউ আর এরকম আদর করে ভাত মেখে কখনো খাইয়ে দিবেনা
যখন প্রতিক্ষণ কাটবে অস্থিরতায়
বুঝবে তবে বুঝবে
কি যে জ্বালা বিরহ ব্যথায় !
**********
আসবে আবার শীতের মৌসুম
যখন তুমি ঘুমুতে মধুর ঘুম
কাঁথা সরে গিয়ে কাঁপতে শীতে থরোথরো।
আর আমি নির্ঘুমে থেকে
কতবার উঠিয়ে দিতাম কাঁথা তবু বলতে-সরো,
একটু ঘুমুতে পারছিনা তোমার জন্য
কেনো এত বিরক্ত করো?

তোমার মুখে যখন ওসব কথা শুনতাম
বল,কখনো কি বিরক্ত হতাম !
শুধু নির্ঘুমে তোমার সুখে সারারাত কাটাতাম ।

দেখবে যখন কেউ আর অমন বিরক্ত করেনা তোমায়
তোমার জন্য কেউ আর নির্ঘুমে রাত না কাটায়
তখনই খুঁজবে আমায়

বুঝবে তখন বুঝবে
কি যে ব্যথা আমার নীরবতায়
বুঝবে সেদিন বুঝবে
কি যে জ্বালা বিরহ ব্যথায়
******
দেখতে দেখতে বছর ঘুরে আসবে আবার বসন্ত
চারদিকে ফুলের ছড়াছড়ি
যখন দেখবে আমার মত
দেয়না কেউ মালা তৈরি করি
সাজিয়ে তোমায়
যখন দেখবে ফুলগুলো ফুটে
আবার ঝরে যায়
বুঝবে তখন বুঝবে
কত কষ্ট আমার নীরবতায়
কত ব্যথা বিরহ জ্বালায় !
**********
দিওনা দিওনা কভু ব্যথা আমায়
চলে যাব দূর অজানায়
বুঝবে তখন বুঝবে
কি যে কষ্ট আমার নীরবতায়
বুঝবে তখন বুঝবে
কত ভালোবাসি তোমায়!