বাংলার অবিসংবাদিত নেতা বঙ্গবন্ধুর জন্ম না হলে বাংলাদেশ নামক ভুখন্ডের জন্ম হতো না—-মেয়র লিটন

প্রকাশিত: ৯:৩৯ অপরাহ্ণ, আগস্ট ১৭, ২০১৮ | আপডেট: ৮:৫০:পূর্বাহ্ণ, আগস্ট ১৮, ২০১৮
যশোর জেলা আওয়ামীলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক বেনাপোল পৌর মেয়র আশরাফুল আলম লিটন বলেছেন,বাংলার অবিসংবাদিত নেতা শ্রেষ্ট বাঙ্গালী জাতির জনক বঙ্গবন্ধুর যদি জন্ম না হতো তাহলে স্বাধীন সার্বভৌম লাল সবুজের  বাংলাদেশ নামক  ভুখন্ডের জন্ম হতো না। বঙ্গবন্ধু এদেশের মানুষকে ভালবেসে বার বার পাকিস্থানীদের লালসার শিকার হয়ে  তার যৌবনের শ্রেষ্ট সময় কারা বরন করেছেন। শার্শার উলাশী ইউনিয়নে ১৫ আগষ্ট জাতীয় শোক দিবস ও বঙ্গবন্ধুর ৪৩ তম শাহাদত বার্ষিকী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসাবে মেয়র আশরাফুল আলম লিটন।
শুক্রবার বেলা ৫ টাার সময শার্শা উপজেলা যুবলীগের আয়োজনে পানবুড়ি ইউনিয়ন পরিষদ চত্বরে ১৫ আগষ্ট জাতিয় শোক দিবস ও বঙ্গবন্ধুর ৪৩ তম শাহাদত বার্ষিকী উপলক্ষে দোয়া ও আলোচনা সভায় উপজেলা যুবলীগের আহবায়ক সাইদুজ্জামান বিটনের সভাপতিত্বে প্রধান অতিথি মেয়র লিটন বলেন, বঙ্গবন্ধুর ডাকে সাড়া দিয়ে এদেশের সাড়ে ৭ কোটি মানুষ যার যা হাতিয়ার  ছিল তাই নিয়ে ঝাপিয়ে পড়েছিল পাকিস্থানী হানাদার বাহিনীর বিরুদ্ধে। ঠিক ৯ মাস যুদ্ধ করে বাংলাদেশকে মুক্ত করে লাল সবুজের পতাকা উড়াইয়া ছিল এদেশের মুক্তি কামি মানুষেরা। সেদিন ৩০ লক্ষ শহীদের রক্তের বিনিময়ে ২ লক্ষ মা বোনের সম্ভম হানির মধ্যে দিয়ে আমরা পেয়েছিলাম বাংলাদেশ নামক ভুখন্ড। তাই আমি তাদের রক্তের কছম দিয়ে বলছি এই উলাশির মানুষ শার্শার মানুষ তাদের ছেলে মেয়েদের লেখা পড়া শিখিয়ে দেশের কাছে বিশ্বের কাছে নের্তৃত্ব দেওয়ার যোগ্যতায় গড়ে তুলুক। আজ শহীদের রক্তের ঋন শোধ হবে তার একটি মাত্র পথ তা হলো মানুষের মত মানুষ হওয়া আমাদের ছেলে মেয়েদের।
প্রধান অতিথি বলেন বঙ্গবন্ধু বার বার মৃত্যুর মুখোমুখি হয়ে ও পালিয়ে যান নাই । তিনি এই বাঙ্গালী জাতির জন্য লড়ে গেছেন  হানাদার পাকবাহিনীর বিরুদ্ধে।  তাই তার ঋন শোধ করতে হলে আমাদের দেশের মানুষকে মানুষ হতে হবে। আজ তার কন্যা জননেত্রী শেখ হাসিনা দেশকে এগিয়ে নেওয়ার জন্য বিশ্বের এ প্রান্ত থেকে অন্য প্রান্ত পর্যান্ত ছুটে বেড়ায়ে এক অনন্য উচ্চতায় দেশকে পৌছে দিয়েছে।
এ সময় বিশেষ অতিথি হিসাবে উপস্থিত ছিলেন যশোর জেলা আওয়ামীলীগের শিক্ষা বিষয়ক সম্পাদক আসিফ উদ দৌলা সরদার অলোক, শার্শা উপজেলা আওয়ামীলীগের প্রচার সম্পাদক ইলিয়াছ আযম, দপ্তর সম্পাদক আজিবর রহমান, শ্রম বিষায়ক সম্পাদক শেখ কোরবান আলী, শার্শা উপজেলা  যুবলীগের যুগ্ম সাধারন সম্পাদক জাকির হোসেন, মহিলা আওয়ামীলীগের সাধারন সম্পাদক শারমিন আক্তার, উপজেলা সাংস্কৃতিক ফোরামের আহবায়ক এমদাদুল হক বকুল, সাংবাদিক কল্যান সমিতি ও আওয়ামী সাংস্কৃতিক ফোরামের নেতা আমিনুর রহমান, পুটখালী ইউনিয়ন আওয়ামলীলীগের সভাপতি আব্দুল গফফার সরদার শার্শা উপজেলা ছাত্রলীগের সাধারন সম্পাদক আকুল হোসাইন, দপ্তর সম্পাদক আরিফুর রহমান প্রমুখ।