‘বিএনপি-জামায়াত বঙ্গবন্ধু হত্যায় সুবিধাভোগী’

জি এম নিউজ জি এম নিউজ

বাংলার প্রতিচ্ছবি

প্রকাশিত: ৭:৩৩ অপরাহ্ণ, আগস্ট ১৫, ২০১৮ | আপডেট: ৭:৩৩:অপরাহ্ণ, আগস্ট ১৫, ২০১৮

আওয়ামী লীগের সভাপতিমন্ডলীর সদস্য এবং স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ মন্ত্রী মোহাম্মদ নাসিম বলেছেন, বঙ্গবন্ধুর হত্যাকান্ডের পৃষ্ঠপোষক বিএনপির সাথে জাতীয় নির্বাচন নিয়ে কোন সংলাপ হবে না।

বুধবার (১৫ আগস্ট) জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ৪৩তম শাহাদাত বার্ষিকী ও জাতীয় শোক দিবস উপলক্ষে রাজধানীর কারওয়ান বাজারে পরিবার পরিকল্পনা অধিদপ্তর আয়োজিত মিলাদ মাহফিল ও আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তৃতায় তিনি একথা বলেন।

মোহাম্মদ নাসিম বলেন, ‘বিএনপি-জামায়াত বঙ্গবন্ধু হত্যায় সুবিধাভোগী। তাদের সঙ্গে কোন সমঝোতা নেই। আমরা আশা করি সংবিধান অনুযায়ী নির্বাচন হবে। সংলাপ অর্থহীন। সংলাপের কোন মূল্য নাই।’

পরিবার পরিকল্পনা অধিদপ্তরের মহাপরিচালক কাজী মোস্তফা সারোয়ারের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে অন্যান্যের মধ্যে স্বাস্থ্য সেবা বিভাগের সচিব সিরাজুল হক খান, স্বাস্থ্য শিক্ষা ও পরিবার কল্যাণ বিভাগের সচিব জি এম সালেহ উদ্দিন প্রমুখ বক্তব্য রাখেন।

মোহাম্মদ নাসিম বলেন, যারা ষড়যন্ত্রের রাজনীতি করে তারাই সংবিধান ছিন্নভিন্ন করে বঙ্গবন্ধু হত্যার বিচার বন্ধ করেছিল ইনডেমনিটির মাধ্যমে। একটি হত্যার বিচার সেদিন যারা বন্ধ করেছিল, পরে আত্মস্বীকৃত খুনিদের সংসদে বসার সুযোগ করে দিয়েছিল তাদের মুখে আইনের শাসন, মানবাধিকার শব্দগুলো মানায় না। সেদিন দেশে বিদেশে মানবাধিকার নিয়ে কেউ প্রশ্ন না তুলে আত্মস্বীকৃত খুনীদেরকেই প্রশ্রয় দিয়েছিল।

তিনি বলেন, আগামী বিজয়ের মাসে নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে। আমরা নির্বাচনে বিশ্বাস করি। ২০১৪ সালে যথাসময়ে নির্বাচন না হলে এই দেশে মার্শাল ল থাকতো। নির্বাচনে আমরা জনগণের কাছে যাবো ভোট দিলে সরকার গঠন করবো, না দিলে সরকার গঠন করবো না। জনগণ যাদেরকে ভোট দিবে আমরা তাদেরকে সালাম জানাবো।

স্বাস্থ্যমন্ত্রী বলেন, একটানা দশ বছর ক্ষমতায় থেকে দেশের সব উন্নয়ন করা সম্ভব হয়না। মালয়েশিয়া, সিঙ্গাপুরের মত উন্নয়নশীল দেশে যুগ যুগ ধরে একই সরকার দেশ পরিচালনা করছে। এজন্য তারা অনেক এগিয়ে গেছে। সরকারের উন্নয়ন কার্যক্রমের পূণাঙ্গ বাস্তবায়নের জন্য আগামীতে আবারো জনগণ আওয়ামী লীগকেই ভোট দিবে। জনগণ জানে কোন্ দল উন্নয়নের রাজনীতি করে, আর কোন্ দল ষড়যন্ত্রের রাজনীতি করে।

এর আগে স্বাস্থ্যমন্ত্রী রাজধানী উন্নয়ন কর্তৃপক্ষ (রাজউক) অডিটোরিয়ামে জাতীয় শোক দিবসের আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির হিসাবে বক্তৃতা করেন। রাজউক আয়োজিত এই অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন রাজউক চেয়ারম্যান মো. আব্দুর রহমান।

এছাড়াও সকালে স্বাস্থ্যমন্ত্রীর নেতৃত্বে স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ মন্ত্রণালয়ের কর্মকর্তা এবং কর্মচারীরা ধানমন্ডির ৩২ নম্বর সড়কের সামনে রক্ষিত বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে পুষ্পস্তবক অর্পণ করেন।