দক্ষিণ কোরিয়ায় বাংলাদেশী শিক্ষার্থীদের সাফল্যগাথা

প্রকাশিত: ৪:২৮ অপরাহ্ণ, নভেম্বর ১৯, ২০১৭ | আপডেট: ৪:২৮:অপরাহ্ণ, নভেম্বর ১৯, ২০১৭
দক্ষিণ কোরিয়ায় বাংলাদেশী শিক্ষার্থীদের সাফল্যগাথা

মো:মুস্তাফিজুর রহমান পাপ্পু: লাল-সবুজের পতাকা নিয়ে আবারো বাংলার মেধাবী ছাত্র-ছাত্রী দেখিয়ে দিলো শুধু জ্ঞান-বিজ্ঞানে না বাংলার স্বাধীনতা ও সংস্কৃতির ঐতিহ্য ধারনে আমারাই সেরা, আমরাও পারি।
পৃথিবীর অনেক ধনী দেশ-ই তাদের স্বাধীনতা ও সংস্কৃতির ঐতিহ্য এখন যাদুঘরে প্রদর্শন করে তখন বাংলার মেধাবীরা মাত্র ১৫ মিনিটে তাদের গ্রাম বাংলার ঐতিহ্য ও স্বাধীনতা পর্ব মঞ্চ প্রদর্শন করে জিতে নিলো ১ম পুরস্কার।

দক্ষিণ কোরিয়ার চংবুক ন্যাশনাল ইউনিভারসিটিতে বাংলাদেশের বিভিন্ন বিশ^বিদ্যালয় থেকে আগত শিক্ষক ও ছাত্র-ছাত্রীরা মিলে মাত্র ১১ জন অত্যন্ত দক্ষতার সাথে ১০টি দেশকে পিছনে ফেলে মাথা উঁচু করে ধরলো বাংলার লাল-সবুজ পতাকা। গত ১৬ নভেম্বও, ২০১৭ ইং দক্ষিণ কোরিয়ার চংবুক ন্যাশনাল ইউনিভারসিটিতে আন্তর্জাতিক বিভাগের তত্ত্বাবধানে অত্র বিশ^বিদ্যালয়ে অধ্যায়নরত বিভিন্ন দেশের ছাত্র-ছাত্রীদের অংশগ্রহনে ইউনিভারসিটির গেসিন কালচারাল হলে অনুষ্ঠিত হলো  “2017 International Students Festival, CBNU”। উক্ত অনুষ্ঠানে অংশগ্রহনকারী দেশসমূহ হলো বাংলাদেশ, ভারত, পাকিস্তান, নেপাল, চীন, মঙ্গোলিয়া, মালয়েশিয়া, ভিয়েতনাম, শ্রীলঙ্কা ও কম্বোডিয়া। বাংলাদেশীরা তাদের অনুষ্ঠানে একটি পল্লী বালিকার প্রাতঃকালের সূর্য¯œানসহ, বাংলার বাউল, কৃষক, বিবাহ অনুষ্ঠান ও স্বাধীনতা যুদ্ধে বিজয়ের মাধ্যমে প্রথম পর্বের সমাপ্তির পর কোরিয়ান গান, গীটার বাজানো ও সর্বশেষে এক মনোমুগ্ধকর গ্রুপ নৃত্য প্রদর্শন করেন।


সম্পূর্ণ অনুষ্ঠান পরিচালনা করেন মাস্টার্স কোর্সে অধ্যায়নরত মো. আরাফাত ইসলাম লিয়ন। অনুষ্ঠানে অংশগ্রহনকারীগন হলেন অত্র বিশ^বিদ্যালয়ে বিভিন্ন কোর্সে অধ্যায়নরত মোঃ ওমর শরীফ (সহকারী অধ্যাপক, সিকৃবি) ও তার সহধর্মিনী মিসেস সাবরিনা হোসেন, মোঃ শামীম আহমেদ (ডি.এ.ই. ঢাকা), ইঞ্জিয়ার ওবাইদুল্লাহ অভি, মোঃ সিফাতুল ইসলাম ও শাহিনূর আলম। এছাড়াও আরো অংশগ্রহন করেন ড. স্বপন কুমার রায় ও তার সহধর্মিনী কবিতা রায় এবং তাদের একমাত্র কন্যা ঈকশিতা রায় ও ড. দিব্যেন্দু বিশ^াস (সহযোগী অধ্যাপক, পবিপ্রবি)। পুরস্কার হিসেবে প্রায় ৫০০ ইউএস ডলার-এর সমপরিমান কোরিয়ান মুদ্রা বাংলাদেশীদের হাতে তুলে দেন অত্র বিভাগের ডিন মহোদয়।