সিলেটে জয়ের সুবাস পাচ্ছে ধানের শীষ

জি এম নিউজ জি এম নিউজ

বাংলার প্রতিচ্ছবি

প্রকাশিত: ৫:৪৪ অপরাহ্ণ, জুলাই ৩১, ২০১৮ | আপডেট: ৫:৪৪:অপরাহ্ণ, জুলাই ৩১, ২০১৮

কেন্দ্র দখল, জাল ভোটসহ নানা অভিযোগ সত্ত্বেও সিলেট সিটি করপোরেশন নির্বাচনে বিএনপি মনোনীত মেয়র প্রার্থী আরিফুল হক চৌধুরী এগিয়ে রয়েছেন।

তবে দুই প্রধান মেয়র প্রার্থীর ভোটের ব্যবধান স্থগিত দুটি কেন্দ্রের ভোটের চেয়ে কম হওয়ায় সিলেট সিটি নির্বাচনে মেয়র পদের ফল ঘোষণা করা হয়নি।

১৩৪টি কেন্দ্রের মধ্যে ১৩২টি কেন্দ্রের ফলাফলে বিএনপির আরিফুল হক চৌধুরী পেয়েছেন ৯০ হাজার ৪৯৬ ভোট। অপরদিকে তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী আওয়ামী লীগের প্রার্থী বদর উদ্দিন কামরান পেয়েছেন ৮৫ হাজার ৮৭০ ভোট।

বিএনপি মনোনীত প্রার্থী আরিফুল হক চৌধুরী আওয়ামী লীগের প্রার্থী বদর উদ্দিন কামরানের চেয়ে ৪৬২৬ ভোটে এগিয়ে রয়েছেন।

এদিকে, কেন্দ্র থেকে এজেন্টদের কাছ থেকে পাওয়া ফল এবং ঘোষিত ফলের মধ্য পার্থক্য থাকার অভিযোগ এনে পুনরায় ভোট গণনার জন্য আবেদন করেছেন কামরানের প্রধান নির্বাচনী এজেন্ট মিজবাহ উদ্দিন সিরাজ।

অন্যদিকে, বিএনপি মনোনীত প্রার্থী আরিফুল হক চৌধুরী ভোটগ্রহণ শেষ হওয়ার পরপরই অনিয়মের অভিযোগ তুলে বলেছিলেন, ‘ফল যাই হোক না কেন, তিনি তা প্রত্যাখ্যান করছেন।’

স্থগিত ভোটকেন্দ্র দুটি হলো, নগরীর ২৪ নম্বর ওয়ার্ডের গাজী বোরহান উদ্দিন (রহ.) মাদ্রাসা (১১৬ নং কেন্দ্র) ও ২৭ নম্বর ওয়ার্ডের হবিনন্দি সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় (১৩৪ নং কেন্দ্র)। গাজী সৈয়দ বোরহান উদ্দিন (রহ.) মাদ্রাসা কেন্দ্রে ভোটার সংখ্যা ২ হাজার ২২১ জন ও হবিনন্দি সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় কেন্দ্রে ভোটার সংখ্যা ২ হাজার ৫৬৬ জন।

সিলেটে মোট ভোটার ৩ লাখ ২১ হাজার ৭৩২ জন। এর মধ্যে পুরুষ ১ লাখ ৭১ হাজার ৪৪৪ জন এবং নারী ১ লাখ ৫০ হাজার ২৮৮ জন। একজন মেয়র, ২৭ জন ওয়ার্ড কাউন্সিলর এবং ৯ জন নারী কাউন্সিলর নির্বাচনে ভোট দেন ভোটাররা।