আচরণবিধি লঙ্ঘন: ভোটের আগের দিন সাদিককে শোকজ

প্রকাশিত: ৭:০০ অপরাহ্ণ, জুলাই ২৯, ২০১৮ | আপডেট: ৭:২৮:অপরাহ্ণ, জুলাই ২৯, ২০১৮

ভোটের প্রচারের শেষ দিনে বিপুল সংখ্যক মানুষকে নিয়ে পথসভা করায় আচরণবি‌ধি লঙ্ঘনের অভিযোগ এনে বরিশাল সি‌টি করপোরেশন নির্বাচনে আওয়ামী লীগের মেয়র প্রার্থী সের‌নিয়াবাত সা‌দিক আব্দুল্লাহকে কারণ দর্শাতে (শোকজ) বলেছে নির্বাচন কমিশন।

ভোটের আগের দিন র‌বিবার নৌকা প্রথীকের প্রার্থীকে শোকজ করা হয় বলে জানিয়েছেন রিটার্নিং কর্মকর্তার কার্যালয়ের কর্মীরা।

পরে বিষয়টি নিশ্চিত করে বিকালে বরিশাল জেলার সিনিয়র নির্বাচন কর্মকর্তা হেলাল উদ্দিন খান বলেন, ‘শনিবার আচরণবি‌ধি লঙ্ঘন করে বিপুল সংখ্যক মানুষ নিয়ে জনসভা করায় সা‌দিক আব্দুল্লাহ‌কে শোকজ করা হয়েছে।’

শনিবার ভোটের প্রচারের শেষ দিন বিকালে বরিশাল নগর ভবনের সামনে বিশাল পথসভা করেন সাদিক আবদুল্লাহ যা ছিল জনসভার মতো।

পথসভা উপলক্ষে নগরের বিভিন্ন ওয়ার্ড থেকে নেতাকর্মী ও ভোটাররা খণ্ড-খণ্ড মিছিল নিয়ে নগরের সোহল চত্বরে আওয়ামী লীগের দলীয় কার্যালয় ও ফজলুল হক অ্যাভিনিউতে জড়ো হন। এ সময় দলীয় নেতাকর্মীদের হাতে প্রতীকী নৌকা দেখা যায়। এছাড়াও তরুণদের গায়ে আওয়ামী লীগের মেয়র প্রার্থীর ছবি সংবলিত টি-শার্ট দেখা গেছে।

বাংলাদেশে নির্বাচনে জনসভা করার রীতি থাকলেও সেনা সমর্থিত তত্ত্বাবধায়ক সরকারের আমল থেকে এতে বিধি নিষেধ আরোপ করা হয়। তখন থেকে জনসভার বদলে প্রার্থীদেরকে পথসভা করতে অনুমতি দেয়া হয়।

কিন্তু বরিশালে সাদিক আবদুল্লাহ পথসভার না, জনসভা করে আইন লঙ্ঘন করেছেন বলে অভিযোগ উঠে। এতে প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থীরা তার পাশাপাশি নির্বাচন কমিশনের সমালোচনাতেও মুখর।

আজ সংবাদ সম্মেলন করে ইসলামী আন্দোলনের প্রার্থী ওবাইদুর রহমান বলেন, সরকারদলীয় প্রার্থীর এই শক্তি প্রদর্শনে ভোট নিয়ে তিনি আতঙ্কিত। কিন্তু নির্বাচন কমিশন কোনো ব্যবস্থা না নেয়ায় তিনি হতাশ।

এ বিষয়ে জানতে আওয়ামী লীগের প্রার্থী সাদিক আবদুল্লাহ এবং তার প্রধান সমন্বয়ক মহানগর আওয়ামী লীগের সভাপতি গোলাম আব্বাস চৌধুরী দুলালের মোবাইল ফোনে একাধিকবার কল করা হলেও তারা কেউ ফোন ধরেননি।

Print Friendly, PDF & Email