বিএনপি নিজেরাই নিজেদের মাইনাস করেছে: দীপু মনি

জি এম নিউজ জি এম নিউজ

বাংলার প্রতিচ্ছবি

প্রকাশিত: ৯:১৬ অপরাহ্ণ, জুলাই ১৫, ২০১৮ | আপডেট: ৯:১৬:অপরাহ্ণ, জুলাই ১৫, ২০১৮
Russia Bangladesh
আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ডা. দীপু মনি বলেছেন, বিএনপিকে মাইনাস করার প্রয়োজন নেই। তারা নিজেরাই নিজেদের মাইনাস করেছে। বেগম জিয়ার দল দুর্নীতি, দুঃশাসন, নাশকতা ও দেশবাসীর ওপর নির্যাতন করায় তালের অবস্থান তলানিতে গিয়ে ঠেকেছে।
রবিবার দুপুরে ঢাকা রিপোর্টার্স ইউনিটির (ডিআরইউ) সাগর-রুণি মিলনায়তনে ‘স্বপ্ন ফাউন্ডেশন’ আয়োজিত ‘আওয়ামী লীগের সভাপতি ও  প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার কারাবন্দী দিবস’ উপলক্ষে এক আলোচনা সভায় সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে তিনি এসব কথা বলেন।
দীপু মনি বলেন,  বিএনপি তথাকথিত আন্দোলনের নামে ২০১৩ সাল থেকে ২০১৫ সাল পর্যন্ত মানুষকে আগুনে পুড়িয়ে-পুড়িয়ে হত্যা করে দেশের রাজনীতি থেকে মাইনাস হয়ে পড়েছে। তিনি বলেন, বিএনপির  চেয়ারপারসন খালেদা জিয়া বিশ্বের প্রথম তিন নম্বর দুর্নীতিবাজ সরকার প্রধানের একজন অভিধায় পরিচিত খালেদা জিয়া ও তার পরিবারের দুর্নীতির কারণেই নিজে নিজে রাজনীতি থেকে মাইনাস করেছেন। সেখান থেকে তার দলের মহাসচিব যা কিছু বলে হাস্যকর।
সাবেক এই মন্ত্রী বলেন, এতিমের টাকা আত্মসাৎ করায় তিনি (খালেদা) কারাগারে রয়েছেন। তার দলের বাঘা-বাঘা আইনজীবী তাকে মুক্ত করতে পারেননি। কারণ তিনি অভিযোগে অভিযুক্ত। তার এ মামলা আওয়ামী লীগ সরকার দেয়নি। তত্ত্বাবধায়ক সরকার এই মামলা হয়েছে।  বিএনপির আইনজীবীরা এই মামলা আরও আগে নিষ্পত্তি করতে পারতেন। সেটা না করে তারা ( বিএনপির আইনজীবী) এ মামলাকে এ পর্যন্ত নিয়ে এসেছে।
প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার কারামুক্তির বিষয়ে স্মৃতিচারণ করে সাবেক এই পরাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, ২০০৮ সালের ১১ জুন জনগণের চাপে যখন সেই সেনাসমর্থিত তত্ত্বাবধায়ক সরকার শেখ হাসিনাকে মুক্তি দিয়েছেন। আর মুক্তি দিয়েছেন বলেই আজকে আমরা এই জায়গায় আসতে পেরেছি। তিনি বলেন, শেখ হাসিনাকে আটকে রেখে গণতন্ত্রের পথ থেকে সরে সাময়িক শাসন তৈরি করার জন্যই তাকে আটকে রাখা হয়েছিল। আর তখন যেটা বলা হতো যে, মাইনাস টু। আসলে সেটা নয়। তখন তত্ত্বাবধায়ক সরকার মাইনাস টু নয়, বরং শেখ হাসিনাকে মাইনাস ওয়ান করতে চেয়েছিল। সেই সময়ে প্রথমে শেখ হাসিনাকে আটক করা হয়েছিল এবং তারপরে খালেদা জিয়াকে আটক করা হয়। সাংবাদিকদের উদ্দেশ্য করে দীপু মনি বলেন, শেখ হাসিনাকে আটক করে কোথায় রাখা হয়েছিল এবং খালেদা জিয়াকে কোথায় রাখা হয়েছিল, সেটা আপনারা ভালো করেই জানেন।
স্বপ্ন ফাউন্ডেশনের সভাপতি রিয়াজ উদ্দিন রিয়াজের সভাপতিত্বে আলোচনা সভায় আরও বক্তব্যে রাখেন গাজী গোলাম দস্তগীর গাজী এমপি, ঢাকা মহানগর দক্ষিণ ছাত্রলীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক গোলাম সরোয়ার কবির, ঢাকা রিপোর্টার্স ইউনিটির সাধারণ সম্পাদক সৈয়দ শুকুর আলী শুভ, মহিলা আওয়ামী লীগের নেত্রী বন শ্রী বিশ্বাস স্মৃতি কনা, ঢাকা মেডিক্যাল কলেজের শিক্ষক সমিতির সভাপতি ডা. আবু ইউসুফ ফকির প্রমুখ।