মেয়েকে ধর্ষণের মামলা করায় বাবার ওপর হামলা, আহত ৩

প্রকাশিত: ৫:২৭ অপরাহ্ণ, জুলাই ১৪, ২০১৮ | আপডেট: ১:৩১:পূর্বাহ্ণ, জুলাই ১৫, ২০১৮
ভোলা প্রতিনিধি: লালমোহনে এক কিশোরী মেয়েকে ধর্ষনের চেষ্টার প্রতিবাদ ও বিচার দাবি করায় তার পিতামাতার উপর হামলা ও বেদম মারপিট করার অভিযোগ পাওয়া গেছে।
উপজেলার লর্ডহার্ডিঞ্জ ইউনিয়নের ৪নং ওয়ার্ডের গুচ্ছগ্রাম সংলগ্ন এলাকায় আজ ১৩ জুলাই (শুক্রবার) দুপুর অনুমান ১টার দিকে এ ঘটনা ঘটে। জানা গেছে, গুচ্ছগ্রাম এলাকার এসলামের কিশোরী (১২) মেয়ে আকলিমা বাড়ির পাশের বিলে শুক্রবার দুপুর অনুমান ১টার দিকে গরু বাধতে যায়।
এ সময় তাকে একা পেয়ে গুচ্ছগ্রাম আবাসনে বসবাসরত হান্নানের ছেলে আমিন তাকে কুপ্রস্তাব দেয়। এতে মেয়েটি রাজি না হওয়ায় আমিন তাকে জাবরে ধরে জোরপূর্বক ধর্ষনের চেষ্টা চালায়। এতেও মেয়েটি বাধা দিলে তাকে মারপিট করে এবং টানা হেচড়া করে শরীরের বিভিন্ন স্থানে নীলাফুলা জখম করে।  এক পর্যায়ে মেয়েটি ডাকচিৎকার দিলে আশপাশের লোকজন এসে তাকে উদ্ধার করে। মেয়েটির পিতা এসলাম ও মাতা তইয়েবা তাৎক্ষণিক স্থানীয় গন্যমান্যদের কাছে এ ঘটনার প্রতিবাদ জানায় ও বিচার দাবি করে।
কিশোরী মেয়েকে ধর্ষনের চেষ্টা ও তার গলা থেকে স্বর্নের চেইন ছিনিয়ে নেওয়ার ঘটনার বিচার দাবি করায় ক্ষিপ্ত হয়ে হান্নান, আমিন, মমিন, মোরশেদ, রশিদ, রহিম, মনরা, আনোরা, পারুল, মুন্নি, রিনাসহ আরো লোকজন নিয়ে এসলাম, তইয়েবা ও আকলিমাকে এলোপাতারি পিটিয়ে আহত করে। তইয়েবার মাথায় আঘাত করে তাকে রক্তাক্ত জখম করে। আহতদেরকে লালমোহন হাসপাতালে ভর্তি করা হয়।  বিভিন্ন সময় আমিন মেয়েটিকে আজেবাজে কথা বলে এবং কুপ্রস্তাব দিয়ে উত্যক্ত করত বলে অভিযোগ রয়েছে। বিভিন্নভাবে মেয়েটিকে লোভ লালসা দেখিয়ে আমিন তার বিকৃত লালসা পুরন করতে চাইত। নির্যাতিত এসলাম ও তার পরিবার এ ঘটনার ন্যায় বিচার দাবি করেন।