সাংবাদিক লাঞ্ছনায় রাবি ইয়ুথ জার্নালিস্ট ফোরামের নিন্দা

জি এম নিউজ জি এম নিউজ

বাংলার প্রতিচ্ছবি

প্রকাশিত: ৮:০৬ অপরাহ্ণ, জুলাই ৯, ২০১৮ | আপডেট: ৮:০৬:অপরাহ্ণ, জুলাই ৯, ২০১৮

জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয় ও চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ে কর্মরত বিভিন্ন সংবাদ মাধ্যমের সাংবাদিকদের শারিরীক লাঞ্ছনা ও হত্যার হুমকির তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানিয়েছে ইয়ুথ জার্নালিস্ট ফোরাম রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয় শাখা।

সোমবার সকালে শাখায় কর্মরত সাংবাদিকদের পক্ষে এই নিন্দা ও প্রতিবাদ জানিয়ে হামলা ও লাঞ্চনাকারীদের দ্রুত আইনের আওতায় এনে শাস্তির দাবি জানান ওয়াইজেএফবি রাবি শাখার সভাপতি কে এ এম সাকিব ও সাধারণ সম্পাদক মো. মঈন উদ্দীন।

তারা বলেন, বাংলাদেশে সাংবাদিক লাঞ্ছনা এবং তাদের হুমকি প্রদান নতুন কোন ঘটনা নয়। এরুপ কর্মকান্ড সাংবাদিকতা তথা গণমাধ্যমের স্বাধীনতার উপর নগ্ন আঘাত। এ ধরণের পরিস্থিতিতে প্রতিটা সাংবাদিক নিরপাত্তাহীনতায় ভুগছে।

তারা দাবী করেন, সাংবাদিকদের উপর হামলাকারীদের উপর্যুক্ত বিচার না হওয়ায় সাংবাদিক নির্যাতন নিত্যদিনের ঘটনা হয়ে দাড়িয়েছে। এ ঘটনা নতুন নয়। সরকারের কাছে আমরা দাবি জানাই, সমাজের বস্তুনিষ্ঠ তথ্য যারা সচেতন মানুষের সামনে উপস্থাপনের মাধ্যমে দূর্নীতি, সন্ত্রাস দমনের যে ভূমিকা পালন করেন তাদের নির্যাতনের বিরুদ্ধে সরকার যেন কঠোর অবস্থান নেয়। এজন্য একটি সুনির্দিষ্ট আইন প্রণয়নের দাবি জানাচ্ছি। যারা সাংবাদিক নির্যাতনের মতো জঘণ্য কর্মকান্ডে জড়িত তাদের বিরুদ্ধে দেশের প্রচলিত আইনে ব্যবস্থা গ্রহণের জোর দাবি জানাচ্ছি।

উল্লেখ্য, রোববার (৮ জুলাই) বিকালে চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাসে কোটা সংস্কার আন্দোলন চলাকালে পেশাগত দ্বায়িত্ব পালনকালে আব্দুল্লাহ রাকিবকে শারীরিকভাবে লাঞ্ছনা করে রাজনীতি বিজ্ঞান বিভাগের ২০১৬-১৭ শিক্ষার্থী ছাত্রলীগ কর্মী আজাদ হোসেন সাব্বির।
ঘটনার জের ধরে পরে আব্দুল্লাহ রাকিবকে প্রকাশ্যে জবাই করে হত্যার হুমকি দেয় শাখা ছাত্রলীগের সাবেক উপ-দপ্তর সম্পাদক (বহিষ্কৃত) মিজানুর রহমান বিপুল।

এদিকে নীপিড়ন বিরোধী প্রগতিশীল ছাত্রজোটের বিক্ষোভ মিছিলের কর্মসূচি চলাকালে জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের ৪ সাংবাদিককে লাঞ্ছিত করে শাখা ছাত্রলীগের নেতাকর্মীরা।