বিএনপিকে সমর্থন খেলাফত মজলিশের, মনোনয়নপত্র প্রত্যাহার (ভিডিও)

প্রকাশিত: ২:৫৭ অপরাহ্ণ, জুলাই ৯, ২০১৮ | আপডেট: ২:৫৭:অপরাহ্ণ, জুলাই ৯, ২০১৮

বরিশাল সিটি করপোরেশন নির্বাচনে ২০ দলীয় জোটের একক মেয়র প্রার্থীতা নিশ্চিত করতে মনোনয়নপত্র প্রত্যাহার করেছেন জোটের শরীক খেলাফত মজলিশের প্রার্থী খেলাফত মজলিসের মেয়র প্রার্থী অধ্যাপক এ কে এম মাহবুব আলম।

মনোনয়নপত্র জমা দেয়ার শেষ দিনে আজ সোমবার বেলা সাড়ে ১১টায় রিটার্নিং কর্মকর্তার কার্যালয়ে স্ব-শরীরে হাজির হয়ে মনোনয়নপত্র প্রত্যাহার করেন তিনি।

বিএনপি’র প্রার্থী মজিবর রহমান সরোয়ারের সাথে আলাপ-আলোচনার ভিত্তিতে তার পক্ষে মনোনয়নপত্র প্রত্যাহার করেছেন বলে সাংবাদিকদের বলেন।

যদিও লিখিত আবেদনে ব্যক্তিগত কারনে মনোনয়নপত্র প্রত্যাহারের কথা উল্লেখ করেন মাহবুব আলম।

একজন মেয়র প্রার্থী ছাড়াও সাধারন ওয়ার্ডের ৭জন কাউন্সিলর প্রার্থী মনোননপত্র প্রত্যাহার করেন।বরিশাল সিটিতে মেয়র পদে ৮জন, ৩০টি সাধারন ওয়ার্ডে ১৩৯জন এবং ১০ সংরক্ষিত ওয়ার্ডে ৭৯জন মনোনয়নপত্র জমা দিয়েছিলেন।

গত শনিবার রাতে বরিশাল নগরের পুলিশ লাইন রোডে একটি চাইনিজ রেস্তোরাঁয় বিএনপি ও খেলাফত মজলিসের মতবিনিময় সভায় নিজের দাখিলকৃত মনোনয়নপত্র প্রত্যাহারের কথা জানিয়েছেন এ কে এম মাহবুব আলম। একই সময় হেফাজত ইসলামের সমর্থন বিষয়ে ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশের প্রার্থীর সমালোচনা করা হয়।

এর আগে বিএনপির প্রার্থী মজিবর রহমান সরোয়ারকে সমর্থন জানায় জোটের অন্যতম শরিক জামায়াতে ইসলামী বাংলাদেশ। এর ফলে বরিশাল সিটি করপোরেশন নির্বাচনে বিএনপির নেতৃত্বাধীন ২০ দলীয় জোটেরও একক প্রার্থী নিশ্চিত হলো।

বিএনপি থেকে দলের কেন্দ্রীয় নির্বাহী কমিটির যুগ্ম মহাসচিব ও মহানগর কমিটির সভাপতি অ্যাডভোকেট মজিবর রহমান সরোয়ারকে মেয়র পদে মনোনয়ন দেওয়া হয়। একই সঙ্গে কমিশনে মনোনয়নপত্র দাখিল করে ২০ দলীয় জোটের অন্যতম শরিক জামায়াত ও খেলাফত মজলিস। এটা মাথাব্যথার কারণ হয়ে দাঁড়ায় বিএনপিসহ ২০ দলীয় জোটের অন্যান্য শরিক দলের মধ্যে। শেষ পর্যন্ত শরিক দুই দল থেকে মেয়র প্রার্থী প্রত্যাহার করায় অনেকটাই চাপমুক্ত বিএনপি।

সভায় মজিবর রহমান সরোয়ার বলেন, ‘সিটি করপোরেশন নির্বাচন এখন আর স্থানীয় সরকার নির্বাচন নয়। এটি এখন একটি রাজনৈতিক নির্বাচন। এই আন্দোলনের মাধ্যমে জনগণের ভোটের অধিকার প্রতিষ্ঠা করতে হবে। আমাদের মধ্যকার বন্ধুত্বের সম্পর্ক বজায় রেখে আন্দোলনের আরো গভীরে যেতে হবে।’

অধ্যাপক এ কে এম মাহবুব আলম বলেন, ‘আমাদের আরো অনেকটা পথ একসঙ্গে পাড়ি দিতে হবে। কেন্দ্রের নির্দেশনা ছিল বিধায় বরিশাল সিটি করপোরেশন নির্বাচনে মেয়র পদে মনোনয়নপত্র দাখিল করতে হয়েছে। আবার কেন্দ্রের সিদ্ধান্তের কারণেই নিজেদের মধ্যে আলোচনা করে বিএনপির মেয়র প্রার্থী মজিবর রহমান সরোয়ারকে খেলাফত মজলিসের সমর্থন জানানো হলো।’

অন্যদিকে অনুষ্ঠিত সভায় ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশের মেয়র প্রার্থী মাওলানা ওবায়েদুর রহমান মাহবুব হেফাজত ইসলামের আমিরের সমর্থন নিয়ে অপপ্রচারের বিষয়টি নিয়ে সমালোচনা এবং ক্ষোভ প্রকাশ করেন খেলাফত মজলিসের নেতারা। হেফাজত ইসলামের কোষাধ্যক্ষ আলহাজ মাওলানা আবদুল কাদের বলেন, ‘ওবায়েদুর রহমান মাহবুব একজন শিক্ষক। কিন্তু নির্বাচনে হেফাজত ইসলামের আমিরের সমর্থন নিয়ে যে মিথ্যাচার তিনি করেছেন, সেটা তিনি মোটেই ভালো করেননি। তার এ ধরনের কর্মকা-ে গোটা ওলামা সমাজ বিব্রত হয়েছে।’