৫ বছরের শিশু সন্তানকে গাছে বেঁধে পেটালেন মা!

জি এম নিউজ জি এম নিউজ

বাংলার প্রতিচ্ছবি

প্রকাশিত: ১০:৪৫ অপরাহ্ণ, নভেম্বর ১৫, ২০১৭ | আপডেট: ১০:৪৫:অপরাহ্ণ, নভেম্বর ১৫, ২০১৭
৫ বছরের শিশু সন্তানকে গাছে বেঁধে পেটালেন মা!

জমির ধান গরু-ছাগলে খাওয়ার অপরাধে নিজের ৫ বছরের শিশু সন্তানকে ৪ ঘন্টা গাছের সাথে বেঁধে নির্যাতন করেছে মা। বুধবার (১৫ নভেম্বর) বিকেলে বান্দরবানের নাইক্ষ্যংছড়ি উপজেলার দূর্গম বাইশারী ইউনিয়নের হলুদিয়া শিয়া গ্রামে এই ঘটনা ঘটে। শিশু জাহিদুল ইসলাম জিহাদ (৫) হলুদিয়া শিয়া গ্রামের আলী আকবরের ছেলে।

প্রত্যেক্ষদর্শীরা জানান, বাড়ির পাশের জমিতে ধান রোপন করে জিহাদের মা মোমেনা আক্তার (২৫)। ইতিমধ্যে জমির ধান পাকঁতে শুরু করেছে। আশপাশের গরু, ছাগল, মুরগি প্রবেশ করে যেন ধান খেতে না পারে সেজন্য শিশুটিকে পাহারায় রাখে তার মা। অবুঝ শিশুটি পাহারা না দিয়ে অন্য ছেলেদের সাথে অন্যত্র খেলতে চলে যায়। এই ফাঁকে গরু, ছাগল এসে ধান খেয়ে ফেলে। এতে ক্ষিপ্ত হয়ে মা মোমেনা আক্তার তার ৫ বছরের ছেলেকে দুপুর একটা হইতে পাঁচটা পযন্ত জমির পাশের গাছের সাথে বেধে রাখে ও লাঠি পিটা করে।

এই বিষয়ে জানতে শিশুটির বাড়িতে গেলে তার বাবা-মাকে পাওয়া যায়নি। শিশু জিহাদ পার্বত্য চট্টগ্রাম উন্নয়ন বোর্ডের পাড়া কেন্দ্রের ছাত্র। উক্ত পাড়া কেন্দ্রের শিক্ষক ও মহিলা মেম্বার সেলিনা আক্তার বেবী বলেন, ঘটনাটি আমরা শুনে অনেক বেশী মর্মাহত হয়েছি। মোমেনার ২ ছেলে ১ মেয়ে। জিহাদ সবার বড়। ছাত্র হিসেবে সে অনেক মেধাবী এবং নিয়মিত পাড়াকেন্দ্রে আসে।

ঘটনার নিন্দা জানিয়ে বাইশারী ইউপি চেয়ারম্যান মো. আলম কোম্পানী জানান, বিষয়টি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেইসবুকের মাধ্যমে আমি জানতে পারি। বিষয়টি জেনে বাইশারী পুলিশ ফাঁড়ির ইনচার্জ এস.আই আবু মূসা সহ ঘটনাস্থলে যাই ও প্রকাশ্যে বিচার করি। ছেলেটির মা-বাবাকে বকা দিই এবং এমন কাজ না করতে বলি। তবে ছেলেটির মা জানায়, জিহাদ স্কুলে যায়না বলে তাকে গাছের সাথে বেধে রাখা হয়েছিল।