ই-পাসপোর্টসহ একনেকে ১৮ হাজার কোটি টাকার ১৫ প্রকল্প অনুমোদন

জি এম নিউজ জি এম নিউজ

বাংলার প্রতিচ্ছবি

প্রকাশিত: ৬:৩২ পূর্বাহ্ণ, জুন ২৫, ২০১৮ | আপডেট: ৬:৩২:পূর্বাহ্ণ, জুন ২৫, ২০১৮
ই-পাসপোর্টসহ একনেকে ১৮ হাজার কোটি টাকার ১৫ প্রকল্প অনুমোদন

অত্যাধুনিক প্রযুক্তি নির্ভর দেশের ৬৪ জেলায় তিন কোটি ই-পাসপোর্ট নির্মাণ করতে উদ্যোগ নিয়েছে সরকার। বর্তমান বিশ্বের সাথে তাল মিলিয়ে বাংলাদেশের পাসপোর্টের নিরাপত্তা সম্বলিত মোট ৩০ মিলিয়ন ই-পাসপোর্ট তৈরি করা হবে। ‘বাংলাদেশ ই-পাসপোর্ট ও স্বয়ংক্রিয় বর্ডার নিয়ন্ত্রণ ব্যবস্থাপনা প্রবর্তন’ শীর্ষক প্রকল্পটি জাতীয় অর্থনৈতিক পরিষদের নির্বাহী কমিটির (একনেক) সভায় অনুমোদন দেয়া হয়েছে। প্রকল্পটির জন্য ব্যয় ধরা হয়েছে চার হাজার ৬৩৬ কোটি টাকা। এটি সম্পূর্ণ সরকারি অর্থায়নে জুলাই ২০১৮ থেকে জুন ২০২৮ সালে প্রকল্পটি বাস্তবায়ন করবে ইমিগ্রেশন ও পাসপোর্ট অধিদফতর।

 

 

 

গত বৃহস্পতিবার শেরেবাংলা নগরের এনইসি সম্মেলন কক্ষে একনেক সভায় মোট ১৫টি প্রকল্প অনুমোদন দেয়া হয়েছে। এতে সভাপতিত্ব করেন একনেক চেয়ারপারসন ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। অনুমোদিত প্রকল্পগুলোর জন্য ব্যয় ধরা হয়েছে ১৮ হাজার ৩৭২ কোটি টাকা। সভাশেষে প্রকল্পগুলো নিয়ে সাংবাদিকদের ব্রিফ করেন পরিকল্পনামন্ত্রী আ হ ম মুস্তাফা কামাল।
পরিকল্পনামন্ত্রী বলেন, মেগা প্রকল্প পদ্মাসেতুর অতিরিক্ত ১১’শ ৬২ হেক্টর ভূমি অধিগ্রহণের জন্য ১৪‘শ কোটি টাকা বাড়তি অনুমোদন দেওয়া হয়েছে। তিনি বলেন, হাওর এলাকায় আগামীতে যেসব রাস্তা তৈরি হবে সেগুলো এলিভেটেড সিস্টেমে করতে হবে বলে সভায় নির্দেশনা দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী। যাতে নীচ দিয়ে নৌকা বা সাম্পান চলতে পারে। উপর দিয়ে রাস্তা থাকবে। তাহলে আলাদা করে ব্রীজ করতে হবেনা। সভায় ইটনা-মিঠামইন-অষ্টগ্রাম সড়ক নির্মাণ প্রকল্পের প্রথম সংশোধনীতে প্রধানমন্ত্রী এ নির্দেশনা দিয়েছেন। প্রকল্পটির মূল ব্যয় ছিলো ৪৩৮ কোটি টাকা। সংশোধন হয়ে ব্যয় বেড়ে দাঁড়িয়েছে ৮৭৪ কোটি টাকা।

 

একনেকে অনুমোদিত প্রকল্পগুলো হচ্ছে, কুষ্টিয়া মেডিকেল কলেজ ও হাসপাতাল স্থাপন প্রকল্প, দেশব্যাপী ডিজিটাল টেরিস্ট্রিয়াল সম্প্রচার প্রবর্তন প্রকল্প, ২১টি জেলার সুবিধাবঞ্চিত নারী ও শিশুর প্রাথমিক স্বাস্থ্য, প্রজনন স্বাস্থ্য ও পুষ্টি সেবা প্রদান প্রকল্প, ব্লু-গোল্ড প্রোগ্রাম ফর ইন্ট্রিগ্রেটেড সাসটেইনেবল ইকনোমিক ডেভলপমেন্ট ইমপ্রোভিং দ্যা ওয়াটার এন্ড প্রোডাকটিভ সেক্টরস ইন সিলেকটেড পোল্ডারস ফিন্যানসিয়াল প্রকল্প, এস্টাবলিশমেন্ট অব ডিজিটাল ল্যান্ড ম্যানেজমেন্ট সিস্টেম থ্রো ডিজিটাল সার্ভে এন্ড সেটেলমেন্ট অপারেশনস অব থ্রি সিটি করপরেশনস ওয়ান পৌরসভা এন্ড রুরাল উপজেলা অব বাংলাদেশ প্রকল্প, লোকাল গভর্নমেন্ট ইনিশিয়েটিভ অন ক্লাইমেট চেঞ্জ প্রকল্প, দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চলীয় ট্রান্সমিশন গ্রীড সম্প্রসারণ প্রকল্প, ডিপিডিসির আওতায় ঢাকার কাওরানবাজারে ভূ-গর্ভস্থ উপকেন্দ্র নির্মাণ প্রকল্প, লং টার্ম সার্ভিস এগ্রিমেন্ট ফর ভেড়ামারা কম্বাইন্ড সাইকেল পাওয়ার প্ল্যান্ট প্রকল্প, লাকসাম এবং চিনকী আস্তানার মধ্যে ডাবল লাইন ট্র্যাক নির্মাণ প্রকল্প, সিগন্যালিংসহ টংগী ভৈরববাজার সেকশনে ডাবল লাইন নির্মাণ প্রকল্প, বাংলাদেশ কোস্ট গার্ডের জন্য লজিস্টিকস ও ফ্লীট মেইনটেন্যান্স ফ্যাসিলিটিস গড়ে তোলা প্রকল্প।