আর্জেন্টিনা দলে গৃহবিবাদ!

জি এম নিউজ জি এম নিউজ

বাংলার প্রতিচ্ছবি

প্রকাশিত: ৭:১৯ পূর্বাহ্ণ, জুন ২৩, ২০১৮ | আপডেট: ৭:১৯:পূর্বাহ্ণ, জুন ২৩, ২০১৮

প্রথমে ছিল স্রেফ গুঞ্জন- হোর্হে সাম্পাওলিকে নাকি আর কোচ হিসেবে চাচ্ছেন না লিওনেল মেসিরা। খানিক পর সেই গুঞ্জনের পালে হাওয়া দেন রিকার্ডো লোমবার্দি। আর্জেন্টাইন প্রিমেরা ডিভিশনের ক্লাব তাইগ্রেসের কোচ তিনি। আর্জেন্টিনা দলের কয়েকজনের সঙ্গে যোগাযোগ আছে উল্লেখ করে তিনি বলেন, ‘ওরা সাম্পাওলির বরখাস্ত চায়, কোচ করতে চায় বুরুচাগাকে।’ এর পরপরই স্থানীয় ও আন্তর্জাতিক মিডিয়াগুলোতে খবর বেরোয়, কোচের ওপর নাখোশ হয়ে মেসিসহ সাত ফুটবলার বিশ্বকাপের পরই অবসর নিতে যাচ্ছেন। ‘গৃহবিবাদে’র এসব খবরকে আমলে নিয়ে শেষ পর্যন্ত লিখিত বিবৃতি দিতে হয়েছে আর্জেন্টাইন ফুটবল ফেডারেশনকে (এএফএ)। আর ফেডারেশনের এই আমলে নেওয়াকে ভিত্তি করে প্রতিষ্ঠা পেয়েছে আর্জেন্টিনার ভেতরকার অস্থিরতার খবর।

এএফএর দেওয়া বিবৃতিতে বলা হয়, ‘খেলোয়াড়রা মিটিংয়ে বসে একটি সিদ্ধান্ত নিয়েছেন বলে যে খবর ছড়িয়েছে, তা সম্পূর্ণ মিথ্যা।’ তবে বিবৃতির আগের দৃশ্যপটে যা এসেছে, তা গৃহবিবাদের ইঙ্গিতই দেয়। ক্রোয়েশিয়ার কাছে ০-৩-এ হারার পর সাম্পাওলি বলেন, খেলোয়াড়রাই ঠিকমতো খেলতে পারেননি। এ সম্পর্কে পরে সার্জিও আগুয়েরোকে জিজ্ঞেস করা হলে জবাব আসে, ‘উনার যা ইচ্ছা বলতে থাকুক।’ আর্জেন্টিনা এক গোলে পিছিয়ে থাকার সময় আগুয়েরোকে তুলে ফেলেন সাম্পাওলি। আর্জেন্টিনার টিভি-মিডিয়া টিওয়াইসি স্পোর্টসের খবরে বলা হয়, খেলোয়াড়রা বসে সিদ্ধান্ত নিয়েছেন, সাম্পাওলির অধীনে তারা আর খেলবেন না। মঙ্গলবার নাইজেরিয়ার বিপক্ষে গ্রুপ পর্বের শেষ ম্যাচে তারা টিমের টেকনিক্যাল ডিরেক্টর জর্জ বুরুচাগাকে দায়িত্বে চান। আর্জেন্টিনা দলের একাধিক তারকা ফুটবলারের বিশ্বস্ত সূত্রের বরাতে দাবি করা হয়, বিশ্বকাপের পর বেশ কয়েকজন ফুটবলার অবসর নিতে যাচ্ছেন। মেসির নেতৃত্বে অবসর নেওয়াদের মধ্যে আছেন আগুয়েরো, মার্কো রোহো, এভার বানেগা, অ্যাঙ্গেল ডি মারিয়া ও হাভিয়ের মাশ্চেরানোরা। সঙ্গে গঞ্জালো হিগুয়েইনেরও নাকি সম্ভাবনা আছে। যা শেষ পর্যন্ত ‘মিথ্যা’ বলে উড়িয়ে দিয়েছে আর্জেন্টাইন ফেডারেশন। তবে খেলোয়াড়রা যদি সাম্পাওলিকে বরখাস্তের আবেদন করেও থাকেন, তবু তাৎক্ষণিকভাবে কাজটি করা বেশ কঠিন। রাশিয়া বিশ্বকাপের আগে আগে সাম্পাওলির সঙ্গে চুক্তি নবায়ন করে এএফএ। বলা হয়, এ বিশ্বকাপে যা-ই হোক, ২০২২ সালের কাতার বিশ্বকাপ পর্যন্ত দলের দায়িত্বে থাকবেন সাম্পাওলি। তবে চলতি বিশ্বকাপে দলের গৃহবিবাদের ঘটনা যদি আসলেই ঘটে থাকে, সেক্ষেত্রে সাবেক চিলি ও সেভিয়ার এই কোচের চাকরি খুব বেশি দিন নাও থাকতে পারে। এর আগে ২০১৮ পর্যন্ত দায়িত্ব দিয়েও এডোয়ার্ডো বাউজা ও জেরার্ডো মার্টিনোকে সরিয়ে দিয়েছিল আর্জেন্টিনা।

‘ডি’ গ্রুপের দুই ম্যাচ শেষে মাত্র ১ পয়েন্ট নিয়ে খাদের কিনারে দাঁড়িয়ে থাকা আর্জেন্টিনা গ্রুপের শেষ ম্যাচটি খেলবে মঙ্গলবার নাইজেরিয়ার বিপক্ষে।