নতুন আঙ্গিকে আয়ুর্বেদা

রূপ নকশা

জি এম নিউজ জি এম নিউজ

বাংলার প্রতিচ্ছবি

প্রকাশিত: ৯:৪৯ পূর্বাহ্ণ, জুন ১৯, ২০১৮ | আপডেট: ৯:৪৯:পূর্বাহ্ণ, জুন ১৯, ২০১৮

আয়ুর্বেদীয় পদ্ধতিতে রূপচর্চার সেবা দেওয়া হয় যেখানে, সেখানকার পরিবেশও নান্দনিক হওয়া দরকার। কারণ, চারপাশ যখন পরিচ্ছন্ন থাকবে, তখন এমনিতেই ভালো হয়ে যাবে শরীর ও মন। এই বিষয়ে গুরুত্ব দিয়ে নতুনভাবে রাজধানীর বনানী এ ব্লকের ২৩ নম্বর সড়কে ৮৮ নম্বর বাড়িতে যাত্রা শুরু করেছে আয়ুর্বেদা রিসার্চ অ্যান্ড হেলথ সেন্টার। বাঁশ আর গাছের নান্দনিক স্থাপনায় সাজানো আয়ুর্বেদা রিসার্চ অ্যান্ড হেলথ সেন্টারে ঢুকতেই ভেসে আসে সুরের মূর্ছনা, আর পাওয়া যায় নানা ধরনের ভেষজ উপকরণের সুগন্ধ।

‍আয়ুর্বেদা রিসার্চ অ্যান্ড হেলথ সেন্টারের পরিচালক লেডি সারওয়াত আবেদ বলছিলেন, শুধু বাহ্যিক রূপচর্চাই নয়, আয়ুর্বেদে কী খাচ্ছেন সেই বিষয়টিও বেশ গুরুত্বপূর্ণ। এ জন্য এখানে স্বাস্থ্যকর উপায়ে রান্নার ওপর দেওয়া হচ্ছে বিশেষ প্রশিক্ষণ। আরেক পরিচালক জায়েদা ইস্পাহানি বলছিলেন, আয়ুর্বেদ ভেতর থেকে রোগের মূল সমস্যার সমাধান করে দেয়। যে কারণে অনেক জটিল রোগের উপশম হয়।

আয়ুর্বেদা রিসার্চ অ্যান্ড হেলথ সেন্টারের একাংশআয়ুর্বেদা রিসার্চ অ্যান্ড হেলথ সেন্টারের একাংশচারপাশে দূষণের নেতিবাচক প্রভার পড়ে ত্বক ও চুলে। আর শহরের ক্লান্তিকর ব্যস্ততা তো আছেই, যার কারণে বিষণ্ন হয়ে পড়ে মন। নিজেকে সুস্থ ও সুন্দর রাখতে এই দুটি বিষয়ে জোর দেওয়াটা জরুরি। আয়ুর্বেদে মূলত এই কাজটি করা হয়। শরীরের ভেতরকার মূল সমস্যা নির্ণয় করে ভেতর থেকে তা বের করে আনা হয়—এমনই বলছিলেন আয়ুর্বেদিক চিকিৎসক শালীন ভাট্টি। পুরো প্রক্রিয়াতে ব্যবহার করা হয় ভেষজ উপকরণ। কোনো রাসায়নিক পদার্থের ছোঁয়া নেই এখানে। যে কারণে এর ফলাফল পেতে একটু বেশি সময়ই অপেক্ষা করতে হয়। তবে এর সুফল দীর্ঘস্থায়ী।

চাই প্রশান্তিচাই প্রশান্তিএই সময়ের আবহাওয়ার উপযোগী নানা ধরনের নতুন সেবা পাওয়া যাবে আয়ুর্বেদা রিসার্চ অ্যান্ড হেলথ সেন্টারে। আবহাওয়া পরিবর্তনের সঙ্গে সঙ্গে যাঁদের ঠান্ডা, কাশি, শরীরে ব্যথাসহ নানা রকম শারীরিক সমস্যা দেখা দেয়, তাঁদের জন্য রয়েছে মনোরম ও আরোগ্যেম নামে নতুন দুটি সেবা। এই দুই পদ্ধতিতে প্রথমেই আয়ুর্বেদিক তেল দিয়ে বডি ম্যাসাজ করা হয়। এরপর গরম পানির ধোঁয়া ও নানা ভেষজ দিয়ে তৈরি উপকরণের মাধ্যমে নাক ও কানে নানা ধরনের থেরাপি দেওয়া হয়। যে কারণে ভেতর থেকেই দূর হয় রোগের উপসর্গ। এ ছাড়া ত্বক ও চুলের আরও নানা ধরনের সেবা রয়েছে। এই সেন্টারে যেকোনো সেবা নিতে হাতে দুই থেকে তিন ঘণ্টা সময় নিয়ে যেতে হবে। পরপর ৩ মাস ১৫ দিনে একবার এই সেবা নিলে দূর হবে ঠান্ডা-কাশিসহ শরীরের ব্যথা। আয়ুর্বেদা রিসার্চ সেন্টারে যেকোনো সেবা নিতেই আগে থেকে ফোন করে যাওয়া ভালো। ফোন: ০১৫৫০০২৮৪৯৫। প্রথম আলো