ঈদ উপলক্ষে সরকারের বরাদ্দ চাল বিতরণে অনিয়ম, ইউনিয়ন পরিষদ ঘেরাও

জি এম নিউজ জি এম নিউজ

বাংলার প্রতিচ্ছবি

প্রকাশিত: ৯:৪৮ অপরাহ্ণ, জুন ১২, ২০১৮ | আপডেট: ৯:৪৮:অপরাহ্ণ, জুন ১২, ২০১৮
ঈদ উপলক্ষে সরকারের বরাদ্দ চাল বিতরণে অনিয়ম, ইউনিয়ন পরিষদ ঘেরাও

ঈদুল ফিতর উপলক্ষে সরকারের বরাদ্দ ভিজিএফের চাল বিতরণে অনিয়মের অভিযোগ পাওয়া গেছে। ফরিদপুরের সালথা উপজেলার মাঝারদিয়া ইউনিয়ন পরিষদে মঙ্গলবার সকালে চাল বিতরণের সময় এ অনিয়মের অভিযোগ উঠে।

অনিয়মের প্রতিবাদে ভিজিএফ উপকারভোগী ও এলাকাবাসী ইউনিয়ন পরিষদ ঘেরাও করে রাখে। পরে প্রশাসনের হস্তক্ষেপে ওই ইউনিয়নের কর্তব্যরত ট্যাগ অফিসার উপজেলা সমবায় কর্মকর্তা আব্দুর রহমানের উপস্থিতিতে চাল বিতরণ করা হয়।

ভিজিএফ উপকারভোগী ও স্থানীয় এলাকাবাসী জানায়, সরকারি নিয়মানুযায়ী মাঝারদিয়া ইউনিয়নে ১ হাজার ৭৮৫টি ভিজিএফ কার্ড বরাদ্দ রয়েছে। ইউনিয়ন পরিষদ কার্যালয়ে সকাল থেকে চাল দেয়া শুরু করা হয়।

প্রতি কার্ডধারীকে ১০ কেজি করে চাল দেয়ার কথা থাকলেও ইউপি চেয়ারম্যান হাবিবুর রহমান হামিদ ও ইউপি সচিব সাব্বির হাসান ৬-৭ কেজি করে চাল বিতরণ করেন। চাল কম পেয়ে উপকারভোগীরা ক্ষোভ প্রকাশ করে। উত্তেজিত জনতা ইউপি চেয়ারম্যান হাবিবুর রহমান হামিদ ও ইউপি সচিব সাব্বির হাসানকে পরিষদের কার্যালয়ে অবরুদ্ধ করে রাখে।

এ সময় ট্যাগ অফিসার উপজেলা সমবায় অফিসার আব্দুর রহমান উপস্থিত হলে তাকেও ঘেরাও করে স্থানীয়রা। পরে পুলিশ এসে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে।

মুরাটিয়া গ্রামের লিমন, নান্টু, আরজু, কাগদি গ্রামের খলিল, ইশারত, নাজিম মোল্যাসহ আরো অনেকে জানান, সকাল থেকে চাল দেয়া শুরু হলে ১০ কেজির পরিবর্তে ৬ কেজি করে চাল দেয়া হচ্ছিল। উত্তেজিত জনতা ইউপি চেয়ারম্যানসহ দায়িত্বরত কর্মকর্তাকে অবরুদ্ধ করে রাখে। পরে প্রশাসনের হস্তক্ষেপে তারা মুক্ত হন।

মাঝারদিয়া ইউনিয়ন পরিষদের সচিব সাব্বির হাসান বলেন, একটু সমস্যা হয়েছিল। পরে প্রশাসনের পক্ষ থেকে ট্যাগ অফিসারের উপস্থিতিতে চাল বিতরণ করা হয়।

সালথা উপজেলা সমবায় অফিসার ও মাঝারদিয়া ইউপি ট্যাগ অফিসার আব্দুর রহমান বলেন, আমি আসার আগেই এলাকাবাসী উত্তেজনা সৃষ্টি করে। পরে সঠিকভাবেই চাল বিতরণ করা হয়।

চাল কম দেয়ার বিষয়টি অস্বীকার করে মাঝারদিয়া ইউপি চেয়ারম্যান হাবিবুর রহমান হামিদ বলেন, এটি আমার বিরুদ্ধে রাজনৈতিক প্রতিপক্ষের ষড়যন্ত্র।

বিষয়টি নিশ্চিত করে সালথা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোহাম্মাদ মোবাশ্বের হাসান বলেন, চাল বিতরণে অনিয়মের খবর পেয়ে তাৎক্ষণিকভাবে প্রশাসনের পক্ষ থেকে ওই ইউনিয়নের ট্যাগ অফিসারকে পাঠিয়ে চাল বিতরণ করা হয়। দোষীদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়া হবে।