ঈদে কেনাকাটার কথা বলে বন্ধুদের নিয়ে প্রেমিকাকে ‘ধর্ষণ’!

জি এম নিউজ জি এম নিউজ

বাংলার প্রতিচ্ছবি

প্রকাশিত: ৬:৩৬ অপরাহ্ণ, জুন ১২, ২০১৮ | আপডেট: ৬:৩৬:অপরাহ্ণ, জুন ১২, ২০১৮

কিশোরগঞ্জের পাকুন্দিয়া উপজেলায় ঈদের কেনাকাটার কথা বলে বাসা থেকে ডেকে এক স্কুলছাত্রীকে গণধর্ষণের অভিযোগ উঠেছে। এ ঘটনায় ওই কিশোরীর ‘প্রেমিকসহ’ আরও দুজনকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ।

গ্রেপ্তার হওয়া ব্যক্তিরা হলেন- উপজেলার নারান্দি ইউনিয়নের বাদশা মিয়া (২৫), মো. এরশাদ (২৫) ও মো. দুলাল। এদের মধ্যে বাদশার সঙ্গে ওই কিশোরীর প্রেমের সম্পর্ক ছিল বলে জানা গেছে।

আজ মঙ্গলবার ভোরে র‌্যাপিড অ্যাকশন ব্যাটালিয়নের (র‌্যাব-১৪) কিশোরগঞ্জ ক্যাম্পের সদস্যরা অভিযান চালিয়ে বাদশাকে আটক করে। পরে ভিন্ন স্থানে অভিযান চালিয়ে বাকি দুজনকে আটক করা হয়।

র‌্যাব সূত্র জানায়, ধর্ষণের শিকার মেয়েটির সঙ্গে বাদশা মিয়ার প্রেমের সম্পর্ক ছিল। সোমবার সন্ধ্যায় ফোনে ঈদের কেনাকাটা করার কথা বলে তাকে বাড়ি থেকে বের করে বাদশা। পরে বাদশাসহ তার সঙ্গীরা কৌশলে একটি কলাবাগানে নিয়ে মেয়েটিকে রাতভর ধর্ষণ করে তারা।

মঙ্গলবার ভোরে ওই  কিশোরীকে ছেড়ে দেওয়া হলে সে স্থানীয় বাজারে যায়। বাজারের এক পাহারাদার মেয়েটিকে উদ্ধার করে। এর পর তাকে চিকিৎসার জন্য হাসপাতালে পাঠানো হয়।

র‌্যাব-১৪ কিশোরগঞ্জ ক্যাম্পের কোম্পানি অধিনায়ক এম শোভন খান বলেন, অভিযোগ পেয়ে র‌্যাব বিভিন্ন স্থানে অভিযান চালিয়ে মূল হোতা বাদশাসহ তিনজনকে আটক করেছে। অন্যদের ধরতে অভিযান চলছে।

পাকুন্দিয়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আজহারুল ইসলাম সরকার জানিয়েছেন, এ ঘটনায় মেয়েটির বাবা বাদি হয়ে বাদশাসহ পাঁচজনকে আসামী করে পাকুন্দিয়া থানায় নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে একটি মামলা করেছে। মামলার অন্য আসামী হলেন- নারান্দি ইউনিয়নের মো.  নাসিম (২২) ও মো. মামুন (৩০)।