আমাদের রাজনীতি অন্যায়ের সাথে ন্যায়ের, অসভ্যতার সাথে সভ্যতার —–মেয়র লিটন

প্রকাশিত: ১০:২১ অপরাহ্ণ, জুন ১, ২০১৮ | আপডেট: ১০:২১:অপরাহ্ণ, জুন ১, ২০১৮
আমাদের রাজনীতি অন্যায়ের সাথে ন্যায়ের, অসভ্যতার সাথে সভ্যতার  —–মেয়র লিটন
যশোর জেলা আওয়ামীলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক বেনাপোল পৌর মেয়র আশরাফুল আলম লিটন বলেছেন, আমাদের রাজনীতি হচ্ছে অসভ্যর সাথে সভ্যাতার, বেয়াদবের সাথে আদবের ,অভদ্রতার সাথে ভদ্রতার, অন্যায়ের সাথে ন্যায়ের, উশৃংখলের সাথে শৃংখলের । জাতীর জনক বঙ্গবন্ধুকে হত্যার পর ৭৫ এর ১৫ আগষ্টের পর  শার্শার মাটিতে যেসব নেতা কর্মী তাদের নিজেদের জীবনের ঝুকি নিয়ে মামলা মোকদ্দমা অন্যায় অত্যাচার নিপীড়ন সহ্য করে সংগঠনকে সকল রক্তচক্ষু উপেক্ষা করে সুসংগঠিত করেছিল সেসব প্রয়াত নেতাদের রুহের আত্নার মাগফেরাত কামনা করি। জাতির জনক তার যৌবনের শ্রেষ্ট সময় বাংলাদেশকে মুক্ত করার জন্য বার বার জেল জুলুম অত্যাচার সহ্য করেছে। তিনি অসাম্প্রদায়িক রাজনিতীর চেতনাকে এবং বাংলার জনগনকে মুক্ত করার জন্য এদেশের সাড়ে ৭ কোটি মানুষকে একত্রিত করে একটি সুন্দর সার্বভৌম স্বাধীন  রাষ্ট্র উপহার দিয়েছে।উপহার  দিয়েছেন একটি ইসলামি ফাউন্ডেশন । কথাগুলো বললেন বেনাপোল পৌর  আওয়ামীলীগ আয়োজিত ইফতার ও দোয়া মাহফিল অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসাবে মেয়র আশরাফুল আলম লিটন।
শুক্রবার  বিকাল সাড়ে ৪ টার সময় বেনাপোল সোনালী ব্যাংক চত্বরে পৌর আওয়ামীলীগের ভারপ্রাপ্ত আহবায়ক আহসান উল্লাহ মাষ্টারের সভাপতিত্বে প্রধান অতিথি মেয়র লিটন বলেন, আজ বঙ্গবন্ধুর তনয়া প্রধান মন্ত্রী শেখ হাসিনা পিতার দেখানো স্বপ্নকে এবং অসামাপ্ত কাজ বাস্তবায়ন করার জন্য পৃথিবীর এ প্রান্ত থেকে ও প্রান্ত পর্যান্ত ছুটে বেড়াচ্ছে। তারাই মেধাবী নেতৃত্বে আজ বাংলাদেশ উন্নয়ন শীল দেশ হিসাবে স্বীকৃতি পেয়েছে। তিনি বাংলার মানুষকে ভালবেসে ২১ আগষ্টের গ্রেনেড হামলা সহ বার বার মৃত্যুর মুখোমুখি হয়ে ও দেশের মানুষকে ভালবেসে পিছিয়ে যান নাই ।  তিনি বাংলার মানুষের জন্য কাজ করে যাচ্ছে। আজ সমাজে যে , মাদকের ছড়াছড়ি তাও তিনি কঠোর হস্তে দমন করে দেশকে যখন এক অনন্য উচ্চতায় পৌছে দিচ্ছে তখন শার্শার এমপি শেখ শেখ আফিল উদ্দিন প্রকৃত ত্যাগি আওয়ামীলীগ নেতাদের অবমুল্যায়ন অসম্মান করে এবং ত্যাগি কিছু নেতাকর্মীদের হত্যা করে জামাত বিএনপি থেকে আসা নেতাকর্মীদের সাথে আতাত করে বাংলাদেশ আওয়ামীলীগের নেতাকর্মীদের  মামলা হামলা করে ক্ষত বিক্ষত করেছে। সে রাজনীতি কি বোঝে না। সে বোঝে তার নিজের স্বার্থ কিভাবে গরুর খাঠাল দখল করা যায়, কিভাবে হাওড় বাওড় মাছের ঘের দখল করে নিজের উন্নয়ন করা যায়। সে রাজনৈতিক চেতনা সুন্দরের চেতনা বোঝে না।  যে সময় বঙ্গবন্ধুর কন্যা রাষ্ট্র পরিচালনার জন্য নিজের বাড়ি ঘর কোন কিছুর কথা না ভেবে কাজ করে যাচ্ছেন। পিতার ৩২ নং বাড়িটি যাদুঘর হিসাবে সরকারকে দিয়েছে তখন শেখ আফির উদ্দিন তার নেত্রীর গুনাবলীর দিকে না তাকিয়ে তার জুট মিলে বসে পুটখালির গরুর খাটাল নিয়ে মিটিং করে প্রশাসনের ভাইদের সাথে। হাট দখল বাড়ি দখল ঘাট দখল মাঠ দখল নিয়ে ব্যস্ত সময় পার করছেন। তিনি বলেন আপনি বোঝেন নাই শার্শার মানুষ অত্যন্ত ভদ্র শিক্ষিত মার্জিত মানুষ। আপনি রাজনীতি শেখেন নাই। রাজনীতি শিখলে আজ শার্শার মাটিতে আপনি ১৭ টি বছরে মানুষের ভালবাসা পেতেন , আপনি সকল নেতা কর্মীদের ভিতর বিভেদ বিভাজন সৃষ্টি করেছেন।  আমাদের রাজনীতি হচ্ছে অত্যন্ত স্বচ্ছ এবং মানুষকে ভালবাসা , মানুষের উন্নয়ন করা । আজ আমরা এই দুর্বৃত্ত্ব সংসদ সদস্যর বিরুদ্ধে যে যুদ্ধ ঘোষনা করেছি তার নাম শার্শা বাঁচাও। আজ আপনারা আমাকে ভোট দিয়ে যদি কাদা জায়গায় দিয়ে হাটেন তাহলে আপনাদের অসাম্মানিত করা হবে। সে বার বার নৌকা প্রতীকের প্রার্থীদের অসান্মানিত করেছেন অপমানিত করেছেন তাই তার আর এই নৌকা প্রতীক থাকবে না। সে পাবে আনারস প্রতীক। আজ এই আফিল উদ্দিনের নেতৃত্বে জামাত বিএনপির লোকদের সকল ধরনের সরকারের সহযোগিতার কার্ড দেওয়া হচ্ছে। আজ যারা রাজনীতির প্রশ্রয়ে মাদক ব্যবসা করছে তাদের দিন শেষ । আমাদের আদর্শ থাকবে জননেত্রী শেখ হাসিনার পাশে থাকা। শেখ হাসিনার হাতকে শক্তিশালি করে গড়ে তুলে দলকে আরো সুসংহত ও দেশকে উন্নত সমৃদ্ধশালী করতে।
এ সময় বিশেষ অতিথি হিসাবে উপস্থিত ছিলেন যশোর জেলা আওয়ামীলীগের শিক্ষা বিষয়ক সম্পাদক আসিফ উদ দৌলা সরদার অলোক বেনাপোল পোর্ট থানা ওসি অপুর্ব হাসান শার্শা উপজেলা আওয়ামীলীগের  যুগ্ম সাধারন সম্পাদক ফজলুল হক বকুল, সাংগঠনিক সম্পাদক আব্দুল মালেক, প্রকাশনা সম্পাদক ইলিয়াছ আযম, দপ্তর সম্পাদক আজিবর রহমান,অর্থ বিষায়ক সম্পাদক খোদাবক্স,বেনাপোল পৌর যুবলীগের আহবায়ক সুকুমার দেবনাথ শার্শা উপজেলা সাংস্কৃতিক ফোরামের আহবায়ক এমদাদুল হক বকুল,বীর মুক্তি যোদ্ধা আব্দুল গফুর মাষ্টার,শার্শা উপজেলা যুবলীগের যুগ্ম আহবায়ক সেলিম রেজা বিপুল,সাংস্কৃতিক ফোরামের নেতা আমিনুর রহমান, বেনাপোল পৌর আওয়ামীলীগের সভাপতি রহমত আলী, পুটখালী ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সভাপতি আব্দুল গফফার সরদার, বাহাদুর ইউনিয়নের চেয়ারম্যান মিজানুর রহমান , বেনাপোল পৌর প্যানেল মেয়র সাহাবুদ্দিন মন্টু, কমিশনার রাশেদ আলী   মিজানুর রহমান, সাংবাদিক ওহিদুল ইসলাম,প্রভাষক আলিম রেজা বাপ্পী,শার্শা মহিলা আওয়ামীলীগের সাধারন সম্পাদক শারমিন সুলতানা, শার্শা উপজেলা ছাত্রলীগের সাধারন সম্পাদক আকুল হোসাইন,প্রমুখ।