মাদারীপুরে মাদক বিক্রিতে বাধা! ইউপি সদস্যের ওপর সন্ত্রাসী হামলা

জি এম নিউজ জি এম নিউজ

বাংলার প্রতিচ্ছবি

প্রকাশিত: ৬:৩৮ অপরাহ্ণ, জুন ১, ২০১৮ | আপডেট: ৬:৩৮:অপরাহ্ণ, জুন ১, ২০১৮

মাদারীপুর সদর উপজেলার পূর্বহাজরাপুর এলাকায় মাদক বিক্রয়ে বাধা দেয়া ও মাদক ব্যবসায়ীকে পুলিশে ধরিয়ে দেওয়ার জেরে গোলাম মাওলা নামে এক ইউপি সদস্যকে মারধর করে গুরুতর আহত করেছে স্থানীয় মাদক ব্যবসায়ী ও তার সহযোগীরা। এ ঘটনায় পুলিশ এখনো কাউকে আটক করকে পারেনি।

আহতর পরিবার স্থানীয় সুত্রে জানা গেছে, সদর উপজেলার পূর্ব হাজরাপুর এলাকায় মাদক ব্যবসায়ীকে পুলিশে ধরিয়ে দেওয়ার জেরে গত বুধবার দুফুরে সদর উপজেলার চরমুগরীয়া বাজারে আসলে পূর্বে পূর্বহাজরা গ্রামের হানিখ আকন ও তার ভাই সেকেন আকন সহ অজ্ঞাত লোকজন নিয়ে পথের মাঝে ঝামেলা সৃস্টি করে। তাৎখনিক স্থানীয় চরমুগরিয়া ফাড়ির এসআই আবুল কালাম ঘটনা স্থলে এসে ঝর্গা থামিয়ে দিয়ে পরে ঘটনাটি মিটমাট করে দেওয়ার বলে দেয়। তবে ইউপি সদস্য মাওলা মুন্সি বাড়ী যাওয়ার পথে চরমুগরিয়া/হাজরাপুর ব্রিজের উত্তর পাশে পূর্ব থেকে ওৎপেতে থাকা মাদক ব্যবসায়ী সিনতা কবিরাজ, বিকাশ ফকিরদের নিয়ে হানিফ আকনের ভাই সেকেন আকন আরোও অজ্ঞাত ৫/৬ জন সন্ত্রাসীরা আকতার মাদবরের অফিসের সামনে অতার্কিত হামলা চালিয়ে গুরুতর আহত করে। স্থানীয়রা আহত অবস্থায় উদ্ধার করে সদর হাসপাতালে ভর্তি হয়ে চিকিৎসাধীন আছে।

ভূক্তভুগিরা আরোও জানায়, আমরা অভিযোগ দিলেও পুলিশ তেমন গুরুক্ত দিচ্ছেনা। মাদক সন্ত্রাসীরা আমাদের হুমকি ধামকি দিতেছে মামলা না করার জন্য। তারা আরো বলে মামলা দিলে আমাদের কিছুই হবেনা। কিছু টাকা পয়সা দিলেই পুলিশ ছেড়ে দিবে। আমরা সাধারন জনগন প্রশাসনের কাছে সন্ত্রাসীদের বিচারের জোর দাবি জানাচ্ছি।

আকতার মাদবর বলেন, এলাকার চিহ্নিত মাদক ব্যবসায়ীদের বিরুদ্ধে আমরা এরাকার সাধারন লোকজন থানায় একটা লিখিত অভিযোগ দিয়েছিলাম এ কারনেই ক্ষিপ্ত হয়ে ইউপি সদস্য গোলাম মাওলার উপর আমার অফিসের সামনের বসেই সন্ত্রাসী হামলা চালিয়ে গুরুতর আহত করে। আমি ও স্থানীয় লোকজন আগাইয়া আসলে সন্ত্রাসীরা দৌড়ে পালিয়ে যায়। কিন্তু বর্তমানে আমাদের ঔ সকল মদক সন্ত্রাসীরা হুমকি ধামকি দিেেছ। আমি এসকল চিহ্নিত মাদক ব্যবসায়ীদের দৃস্টান্ত মুলক বিচার দাবি করছি।

উল্যেখঃ গত ২২ মে পূর্ব হাজরাপুর এলাকা থেকে এক মাদক ব্যবসায়ীকে ৪০০শত পিচ ইয়াবাসহ স্থানীয়রা ধরে পুলিশে সোর্পদা করে। এঘটনার পরিপেক্ষিতে এ হামলা চালানো হয়।

মাদরীপুর জেলার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার(সার্কেল) সুমন দেব জানান, মাদক ব্যবসায়ী যেই হোক না কেন কাউকেই বিন্দু পরিমান ছাড় দেওয়া হবেনা। আইনের আওতায় এনে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।