বাকেরগঞ্জে নানা কর্তৃক নাতীকে যৌন হয়রানীর অভিযোগ

জি এম নিউজ জি এম নিউজ

বাংলার প্রতিচ্ছবি

প্রকাশিত: ৩:৫৫ পূর্বাহ্ণ, জুন ১, ২০১৮ | আপডেট: ৩:৫৫:পূর্বাহ্ণ, জুন ১, ২০১৮
বাকেরগঞ্জে নানা কর্তৃক নাতীকে যৌন হয়রানীর অভিযোগ

বাকেরগঞ্জ প্রতিনিধি॥
বাকেরগঞ্জে নানা কর্তৃক নাতীকে যৌন হয়রানীর অভিযোগ উঠেছে। জানা যায়, গত ২৭ মে (রবিবার) সন্ধ্যা ৭টার দিকে উপজেলার গারুড়িয়া ইউনিয়নের সাহেবপুর গ্রামে ঘটনাটি ঘটেছে। এ ঘটনায় বৃহস্পতিবার ভিকটিমের খালাতো বোন ছালমা বেগম ১ জনকে আসামী করে বাকেরগঞ্জ থানায় একটি লিখিত অভিযোগ দায়ের করেন। অভিযোগ সূত্রে জানা যায়, উপজেলার সাহেপুর গ্রামের ৯নং ওয়ার্ডের বাসিন্দা মৃত এফরান উদ্দিন হাওলাদারের পুত্র হাতেম হাওলাদার (৬৫) তার নাতী পারুল আক্তার (১৬) (ছদ্মনাম) কে বিভিন্ন সময় কু-প্রস্তাব দিত।

 

কু-প্রস্তাবের বিষয়টি পারুল তার পরিবারকে জানালে তারা বেশ কয়েকবার হাতেম হাওলাদারকে সতর্ক করে দেয়। কিন্তু হাতেম হাং এতে ক্ষিপ্ত হয় এবং পারুলের মান ইজ্জত নষ্ট করার ষরযন্ত্র করতে থাকে। এমনকি হাতেম হাং এর কার্যকলাপ কারও কাছে কিছু বললে পারুলের চরিত্র নিয়ে বদনাম রটিয়ে গ্রাম ছাড়া করবে বলে হুমকি দিয়ে আসছিল। একপর্যায় রবিবার সন্ধ্যায় পারুল ইফতারের পর গরমে অসুস্থ বোধ করলে বসত ঘরের পিছনের পুকুর পাড়ে গেলে ঐ সময় হাতেম হাং পারুলকে পুনরায় কু-প্রস্তাব দেয়। পারুল তার কু-প্রস্তাবে রাজি না হলে তার শরীরের স্পর্শ কাতর স্থানে হাত দেয়। পারুলের চিৎকার-চেচামেচিতে আশে পাশের লোকজন ছুটে আসলে পারুলের ইজ্জত রক্ষা পায়। ঘটনার পরে হাতেম হাং পারুল আক্তারকে মারধর,গ্রাম ছাড়ার হুমকী দিয়ে গৃহবন্দি করে রাখে। এই ঘটনা লোক সমাজে ছড়িয়ে পরলে হাতেম হাং এলাকা ছেড়ে পালিয়ে যায়। পরে ৩১ মে সকালে পারুল আক্তার ও তার মা খালাতো বোনের বাড়ি গিয়ে আতœগোপন করেন। এলাকা সূত্রে জানা যায়, হাতেম হাওলাদার একজন অসৎ লম্পট ও দু:শ্চরিত্রের লোক। সে এলাকায় অনেক মেয়েকে উত্যাক্ত করত। বয়সে মুরব্বী বিধায় কেউ বিষয়টি তেমন আমলে নিত না। বাকেরগঞ্জ থানায় অভিযোগের পরে এস আই স্বপন বলেন, ঘটনা স্থাল পরিদর্শন করেছি কিন্তু বিবাদী হাতেম হাং কে পাওয়া যায়নি তদন্ত সাপেক্ষে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে। অসৎ লম্পট ও দু:শ্চরিত্র হাতেম হাং কে আইনের আওতায় নিয়ে এসে দৃষ্টান্তমুলক শাস্তির দাবী জানিছেনে ভুক্তভোগীর পরিবার ও এলাকাবাসী।