বন্দুকযুদ্ধ নিয়ে প্রশ্ন এরশাদের

জি এম নিউজ জি এম নিউজ

বাংলার প্রতিচ্ছবি

প্রকাশিত: ৩:১৩ পূর্বাহ্ণ, মে ২৭, ২০১৮ | আপডেট: ৩:১৩:পূর্বাহ্ণ, মে ২৭, ২০১৮
বন্দুকযুদ্ধ নিয়ে প্রশ্ন এরশাদের

চলমান মাদক বিরোধী অভিযানে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ একের এক পর মৃত্যুর ঘটনার কড়া সমালোচনা করেছেন জাতীয় পার্টির (জাপা) চেয়ারম্যান হুসেইন মুহম্মদ এরশাদ।

তিনি সরকারের কাছে জানতে চেয়েছেন, যাদের ‘হত্যা’ করা হচ্ছে তারা কি এদেশে জন্ম নেয়নি? তাদের কি বিচার পাওয়ার অধিকার নেই?

প্রধানমন্ত্রীর বিশেষ দূত এরশাদ ‘বিচার বহির্ভূত হত্যার’ সমালোচনা করে বলেন, মাদক নিমূর্লের নামে যাদের ‘হত্যা’ করছেন তারা এদেশের নাগরিক। মানুষ মারার অধিকার আপনাদের কে দিয়েছে? দেশে কী আইন বা আদালত নেই।

শনিবার রাজধানীর একটি হোটেলে জাপার জোটের শরিক জাতীয় ইসলামী মহাজোটের ইফতার মাহফিলে এসব কথা বলেন সাবেক রাষ্ট্রপতি এরশাদ।

তিনি বলেন, রমজান শান্তি ও সংযমের মাস। কিন্ত কেউ শান্তি-স্বস্তিতে নেই। আমাগীকাল কে বন্দুকযুদ্ধের শিকার হবে কেউ জানে না।

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ভারত সফর প্রসঙ্গে এরশাদ বলেন, ভারত থেকে প্রধানমন্ত্রীর দেশের জন্য কী এনেছেন জানি না, জানতে চাই। তিস্তার পানি বন্টন সমস্যার সমাধান হলো কী না জানতে চাই।

বাণিজ্যমন্ত্রী তোফায়েল আহমেদের সমালোচনা করে জাপা চেয়ারম্যান বলেন, রমজানে দ্রব্যমূল্য নিয়ন্ত্রনের কথা বললেও, তিনি তা পারেননি।

ধর্মভিত্তিক দলগুলোকে জাপার জোটে যোগ দেওয়ার আহ্বান জানিয়ে এরশাদ বলেন, ইসলামপন্থিরা ঐক্যবদ্ধ নই। সবাই ঐক্যবদ্ধ থাকলে এদেশে কেউ ইসলাম বিনষ্ট করার সাহস পাবে না। আসুন সকল ইসলামী দল ঐক্যবদ্ধ হয়ে নির্বাচন অংশ নিই। যাতে ইসলামের সেবা করতে পারি।

ফিলিস্তিনে দখলদার ইসরায়েলের আগ্রাসন বন্ধে মুসলিম বিশ্বকে সরব হওয়ার আহ্বান জানান এরশাদ। রোহিঙ্গাদের দেওয়া প্রতিশ্রুতি রক্ষার অনুরোধ জানিয়ে বলেন, প্রতিশ্রুতির মূল্য নেই। রোহিঙ্গাদের নিজ দেশে ফেরাতে মিয়ানমারকে চাপ দিতে হবে।

ইফতার মাহফিলে সভাপতিত্ব করেন ইসলামী মহাজোটের চেয়ারম্যান মাওলানা আবু নাসের এয়াহেদ ফারুক। বক্তব্য রাখেন জাতীয় পার্টির কো-চেয়ারম্যান জিএম কাদের, মহাসচিব এবিএম রুহুল আমিন হাওলাদার, প্রেসিডিয়াম সদস্য সৈয়দ আবু হোসেন বাবলা, সুনীল শুভ রায় প্রমুখ।