জয়া শেখালেন বাকীদের

জি এম নিউজ জি এম নিউজ

বাংলার প্রতিচ্ছবি

প্রকাশিত: ৬:৩৬ পূর্বাহ্ণ, এপ্রিল ৩০, ২০১৮ | আপডেট: ৬:৩৬:পূর্বাহ্ণ, এপ্রিল ৩০, ২০১৮
জয়া শেখালেন বাকীদের

বরাবারই চ্যালেঞ্জ নিয়ে অভিনয় করেন জয়া আহসান। ছোট পর্দায় যখন নিয়মিত ছিলেন, অভিনয় গুনেই দর্শকদের কাছে প্রিয় আসন পেয়েছিলেন। ওখান থেকে বড় পর্দায় যাওয়াটা জয়ার জন্য ছিল আরো বেশি চ্যালেঞ্জের। কারণ এর আগে বেশ কিছু অভিনেত্রী ছোট পর্দা থেকে বড় পর্দায় গিয়ে রীতিমত ফ্লপ। এই জায়গাটায় জয়া বুঝিয়েছেনে চ্যালেঞ্জ নিলে সব সম্ভব।

বর্তমানে তার যে ক্যারিয়ার তাতে চোখ বন্ধ করে বাংলা ছবির অন্যতম সেরা অভিনেত্রী হিসাবে স্বীকার করতে কেউই দ্বিধায় ভোগবেন না। পরিশ্রম দিয়ে তিনি সেই জায়গা তৈরী করেছেন। ঠিক এই অবস্থানে থেকেও নতুন চলচ্চিত্রে চুক্তিবদ্ধ হওয়ার আগে চরিত্র কতটা গুরুত্বপূর্ণ আর পর্দায় তার কতটুকুন উপস্থাপন থাকবে সে দিক নিয়ে মাথা ঘামান না। তার কাছে ভালো লাগলে চলচ্চিত্রে চরিত্রটার গুরুত্ব যাই হোক অভিনয় করবেনই।

চলচ্চিত্র সমালোচকদের মতে, জয়ার এই নীতির কারণেই দুই বাংলার চলচ্চিত্রে নিজের অবস্থান এতোটা উপড়ে নিতে পেড়েছেন। এই যেমন মুক্তিপ্রতিক্ষিত ‘এক যে ছিলো রাজা’ছবিতে জয়া অভিনয় করেছেন ছোট্ট একটা চরিত্রে। যেখানে তিনি নায়কের ছোট বোন। অথচ জয়া এই চরিত্রটাকে ফুটিয়ে তুলতে পরিশ্রম করেছেন মূল চরিত্রের চেয়ে বেশি।

ছবিতে সহশিল্পীদের ভাষা শিক্ষার প্রশিক্ষণ দিয়েছেন তিনি। কারণ জয়া নাকি উচ্চারণের দিক দিয়ে অনেক বেশি দক্ষ। ছবির পরিচালক সৃজিত মুখার্জি নিজেই এই কথা জানিয়েছেন।

‘এক যে ছিলো রাজা’ ছবির গল্প গড়ে উঠেছে, গাজীপুরের ভাওয়াল রাজার সন্ন্যাস জীবনের ঘটনা নিয়ে। বর্তমানে চলছে ছবিটির ডাবিং। আর এই ছবিতে অন্যান্য যেসব অভিনয়শিল্পী ছিলেন, তাদেরকে ভাওয়াল অঞ্চলের ভাষা শুদ্ধভাবে উচ্চারণ করতে শিখিয়েছেন জয়া। বিষয়টা জানিয়েছেন নির্মাতা সৃজিত নিজেই। টুইট করে তিনি বলেন, ভাওয়ালের উপভাষা কীভাবে শুদ্ধভাবে উচ্চারণ করতে হয়, সহশিল্পীদের তা শিখিয়েছেন জয়া।

‘এক যে ছিলো রাজা’ ছবির নাম ভূমিকায় অভিনয় করেছেন যীশু সেনগুপ্ত। তার ছোট বোন হিসেবে আছেন জয়া। এছাড়াও ছবিটিতে অভিনয় করেছেন অপর্ণা সেন, রুদ্রনীল ঘোষ, অঞ্জন দত্ত, অনির্বাণ ভট্টাচার্য ও তনুশ্রী চক্রবর্তী। আগামী দুর্গাপূজায় মুক্তি পাবে ‘এক যে ছিল রাজা’।