‘সরকারি চাকরির পেছনে না ছুটে পানের দোকান শুরু করো’

জি এম নিউজ জি এম নিউজ

বাংলার প্রতিচ্ছবি

প্রকাশিত: ৬:৩০ পূর্বাহ্ণ, এপ্রিল ৩০, ২০১৮ | আপডেট: ৬:৩০:পূর্বাহ্ণ, এপ্রিল ৩০, ২০১৮
‘সরকারি চাকরির পেছনে না ছুটে পানের দোকান শুরু করো’

একের পর এক বিতর্কিত মন্তব্য করে আলোচনায় রয়েছেন ভারতের ত্রিপুরা রাজ্যের নবনির্বাচিত বাংলাদেশি বংশোদ্ভূত মুখ্যমন্ত্রী বিপ্লব কুমার দেব। এবার সরকারি চাকরির জন্য রাজনৈতিক দলের পেছনে না ছুটে পানের দোকান দিতে তরুণদের উপদেশ দিলেন তিনি।

ত্রিপুরা ভ্যাটেরিনারি কাউন্সিলের এক সেমিনারে অংশ নিয়ে বিপ্লব কুমার দেব বলেন, সরকারি চাকরি পেতে রাজনৈতিক দলগুলোর পেছনে বছরের পর বছর ঘুরে গুরুত্বপূর্ণ সময় অপচয় করছে তরুণরা। প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির সরকারের মুদ্রা স্কিমের আওতায় ঋণ নিয়ে পশু সম্পদ খাতসহ বিভিন্ন প্রকল্প শুরুর মাধ্যমে শিক্ষিত তরুণদের স্বনির্ভর হওয়ার আহ্বান জানিয়েছেন তিনি।

পানের দোকান বসানোর পাশাপাশি তরুণদের গরু পালনের পথও বাতলে দিয়েছেন বিপ্লব কুমার দেব। তিনি বলেন, ‘প্রত্যেক পরিবারে একটি করে গরু থাকা উচিত। ১০ বছর ধরে বেকার থাকার চেয়ে প্রত্যেক লিটার দুধ ৫০ রুপিতে বিক্রি করো।’

ত্রিপুরারর এই মুখ্যমন্ত্রী বলেন, ‘এই ১০ বছর যদি তরুণরা দুধ বিক্রি করে, তাহলে তাদের ১০ লাখ টাকা ব্যাংক ব্যালেন্স হবে।’

যে কোনো বেকার তরুণ ব্যাংক থেকে সর্বনিম্ন ৭৫ হাজার রূপি ঋণ নিয়ে সামান্য চেষ্টা করলে সহজেই মাসে কমপক্ষে ২৫ হাজার রুপি আয় করতে পারবে। কিন্তু ত্রিপুরায় যে সংস্কৃতি গড়ে উঠেছে তাতে এটা বাধাগ্রস্ত হচ্ছে।

বিপ্লব কুমার দেব মনে করেন, স্নাতক পাস করা তরুণরা চাষাবাদ ও পোল্ট্রি ব্যবসা শুরু করতে পারে না; এমন নিচু মানসিকতার চিন্তা-ভাবনাই বেকারত্বের কারণ।

এর আগে গত জানুয়ারিতে দেশটির প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি সরকারি চাকরির ব্যবস্থা করতে তার সরকার ব্যর্থ হয়েছে বলে যে সমালোচনা উঠে তা নাকচ করে দেন। টেলিভিশনে দেয়া এক সাক্ষাৎকারে ওই সময় তিনি বলেন, যে ব্যক্তি রাস্তার ধারে পাকোড়া বিক্রি করেন; তিনি চাকরিজীবী।

একদিন আগে (২৭ এপ্রিল) ত্রিপুরার এই মুখ্যমন্ত্রী সাবেক মিস ওয়ার্ল্ড দিয়ানা হ্যাইডেন সম্পর্কে বিতর্কিত মন্তব্য করে সমালোচনার মুখে পড়েন। পরের দিন শনিবার তিনি সিভিল ইঞ্জিনিয়ারদের সিভিল সার্ভিসে যোগ দেয়াই উত্তম বলে পরামর্শ দেন। তার এই মন্তব্যের পর বিতর্ক শুরু হয় দেশটিতে।