বাংলাদেশের দাবি অনুযায়ী রোহিঙ্গাদের নেবে না মিয়ানমার

জি এম নিউজ জি এম নিউজ

বাংলার প্রতিচ্ছবি

প্রকাশিত: ৩:০২ অপরাহ্ণ, নভেম্বর ১১, ২০১৭ | আপডেট: ৩:০২:অপরাহ্ণ, নভেম্বর ১১, ২০১৭
বাংলাদেশের দাবি অনুযায়ী রোহিঙ্গাদের নেবে না মিয়ানমার

মিয়ানমারের ধর্ম ও সংস্কৃতি বিষয়ক মন্ত্রী থুরা ইউ অং কো জানিয়েছেন, বৈধ কাগজপত্র রয়েছে এবং ১৯৯৩ সালে বাংলাদেশের সঙ্গে রোহিঙ্গা প্রত্যাবাসনের চুক্তিতে উল্লেখিত চাহিদা যারা পূরণ করতে পারবে সেসব রোহিঙ্গাদের কেবল ফেরত নেওয়া হবে।

এছাড়া রোহিঙ্গা শরণার্থীদের বৈধতা পরীক্ষার জন্য বাংলাদেশ সীমান্তে যে একাধিক কেন্দ্র খোলার দাবি জানিয়েছে তা পূরণ করবে না মিয়ানমার। বরং একটি ক্যাম্প খোলা হবে এবং সেখানেই এই বৈধতা পরীক্ষা করা হবে।

রাখাইনের সিতউইতে পাথেইন ও ধাম্মা থুখা মঠের বৌদ্ধ ধর্মগুরুদের সঙ্গে আলোচনাকালে তিনি এ্ কথা বলেছেন।

রোহিঙ্গাদের বাংলাদেশ থেকে ফিরিয়ে আনার বিষয়ে ভিক্ষুদের উদ্বিগ্ন না হওয়ার কথাও বলেন থুরা।এসময় তিনি বলেন, রোহিঙ্গাদের ফিরিয়ে নিতে আন্তর্জাতিক চাপ থাকা সত্ত্বেও সরকার আগে দেশ ও সামনে থাকা জনগণের স্বার্থকে আগে দেখবে।

রোহিঙ্গাদের ব্যাপারে সু চি’র বর্তমান অবস্থানের প্রতিও সমর্থন ব্যক্ত করেছেন জ্যেষ্ঠ ভিক্ষুরা। তবে তারা ‘রোহিঙ্গা সংখ্যালঘু’ শব্দটি ব্যবহার করা হলে রাখাইন থেকে পালিয়ে যাওয়া মুসলমানদের গ্রহণ করা হবে না বলেও হুঁশিয়ারি দেন। একইসঙ্গে তারা পরামর্শ দিয়েছেন, বাংলাদেশ সীমান্তে কাঁটাতারের বেড়া নির্মাণ শেষ না হওয়া পর্যন্ত যেন রোহিঙ্গাদের ফিরিয়ে আনার ব্যবস্থা শুরু না করা হয়।

আন্তর্জাতিক মানবাধিকার সংগঠনগুলো জানিয়েছে, প্রাণ বাঁচাতে গত ২৫ আগস্ট থেকে এ পর্যন্ত ৬ লাখেরও বেশি রোহিঙ্গা বাংলাদেশে পালিয়ে এসেছে।এছাড়া আগে থেকেই বাংলাদেশে আশ্রয় নিয়েছে আরো প্রায় চার লাখ রোহিঙ্গা। মিয়ানমারের স্টেট কাউন্সিলর সু চির দপ্তরের মহাপরিচালক জ হতেই অবশ্য দাবি করেছেন, এ সংখ্যা সঠিক নয় এবং ‘অসম্ভব’।