তালায় ভাইয়ের সম্পত্তির দখল নিতে অন্যান্য ভাই-বোনদের মিথ্যাচার

জি এম নিউজ জি এম নিউজ

বাংলার প্রতিচ্ছবি

প্রকাশিত: ৭:৩৫ অপরাহ্ণ, এপ্রিল ১৭, ২০১৮ | আপডেট: ৭:৩৫:অপরাহ্ণ, এপ্রিল ১৭, ২০১৮
তালায় ভাইয়ের সম্পত্তির দখল নিতে অন্যান্য ভাই-বোনদের মিথ্যাচার

তালা অফিস : সাতক্ষীরার তালার বারুইহাটি এলাকায় পৈত্রিক ও খরিদা সূত্রে প্রাপ্ত সম্পত্তির ভাগ পেতে বিভিন্ন স্থানে মিথ্যাচার করছেন তারই আপন বোনেরা বলে অভিযোগ করেছেন ভূক্তভোগী নূর ইসলাম গাজী।

অভিযোগে প্রকাশ,তালার বারুইহাটি গ্রামের মৃত জব্বার গাজীর ছেলে নূর ইসলাম গাজী ১৯৯৭ সালের ২৬ নভেম্বর নাদাবি মূলে শরফুদ্দিনের নিকট থেকে ক্রমিক নং ৪১৮ বুনিয়াদে ১০ শতক,২০০৩ সালের ২২ মার্চ জনৈক জমির ও ছমিরের কাছ থেকে ৬১৭৬ নং রেজিস্ট্রি কোবলা বুনিয়াদে ৯ শতক,২০০৪ সালের ৯ জানুয়ারী আয়জান বিবিরি কাছ থেকে ৪২২ নং কোবলা দলিল বুনিয়াদে ১৮ শতক,একই বছরের ৯ ফেব্রুয়ারী একই ব্যক্তির নিকট থেকে ৮৩১ নং রেজিস্ট্রি কোবলা বুনিয়াদে ১৩ শতক ও পৈত্রিক সূত্রে মাত্র ১৪ শতকসহ মোট ৬৪ শতক জমির মালিকানা পেয়ে তা দীর্ঘ দিন যাবৎ ভোগজাত করে আসছেন।

 

ইতোমধ্যে সমূদয় সম্পত্তির রেকর্ড ও খাজনা দাখিলাও সম্পাদন করেছেন।এমন অবস্থায় সম্প্রতি তার ৬ বোন ও ২ ভাইয়েরা সমবেত হয়ে তার খরিদা সম্পত্তির অংশ দাবি করে তার বিরুদ্ধে বিভিন্ন স্থানে নানা রকম মিথ্যাচার করে চলেছেন।
নূর ইসলাম তার অভিযোগে আরো জানান,ইতোমধ্যে তিনি ঋণ পরিশোধ ও নানা জটিলতায় ৪২.৫ শতক জমি বিভিন্ন জনের কাছে বিক্রি করে দিয়েছেন। ঐসকল ক্রেতারা যে যার মত শান্তিপূর্ণভাবে ভোগ-দখল করছেন। এছাড়া তার মালিকানার বাকি ২১.৫ শতক জমির মধ্য থেকে তার ভাই-বোনেরা সমবেত হয়ে খুলনা জোনাল অফিসে মামলাপূর্বক জোনাল কর্মকর্তাকে ভূল বুঝিয়ে ১৪ শতক জমি কর্তন করে নিয়েছে।

 

এর পর নূর ইসলাম সাতক্ষীরা বিজ্ঞ অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে দঃবিঃ ১৪৫ ধারায় একটি লিয়াকত আলী গংদের বিরুদ্ধে মামলা করেন। যার নং- পি-১১৪/১৬(তালা)। ঐ মামলায় বিজ্ঞ আদালত উভয় পক্ষের শুনানীঅন্তে উভয় পক্ষকে যার যার দখল বজায় রাখার আদেশ দেন। শুধু এখানেই শেষ নয় এর আগে গত বছরের ২৭ সেপ্টেম্বর রাত আনুমানিক সাড়ে ৩ টার দিকে সংঘবদ্ধ হয়ে নূর ইসলামের বাড়িতে হানা দেয়। এসময় তারা নূর ইসলাম ও পরিবারের অন্যান্য সদস্যরা ঘুমন্ত অবস্থায় বিভিন্ন ঘরে তালা লাগিয়ে দেয়।

 

এক পর্যায়ে তারা কৌশলে নূর ইসলামের ঘরের দরজা খুলে ভেতরে প্রবেশ করে তাকে শ্বারুদ্ধ ও পাদিয়ে পাড়িয়ে মারাতœক আহত করে। এসময় তারা ঘরের শোকেচের ড্রয়ারে থাকা জমি বিক্রির ২ লাখ ৭৩ হাজার টাকা,১ ভরি স্বর্ণের চেইনসহ অন্যান্য স্বর্ণলংকার লুট করে পালিয়ে যায়। এনিয়ে তালা থানা একটি মামলা হয়। যার নং- ১৫। তাং-২৮/৯/১৭। মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা তালা থানার এস আই মোঃ রফিকুল ইসলাম গত বছর ২৮ অক্টোবর আসামীদের বিরুদ্ধে চার্জ গঠন করে আদালতে পাঠিয়েছেন।
সর্বশেষ এব্যাপারে সহোদর,বোন ও ভাগ্নিনাদের ষড়যন্ত্রের হাত থেকে পরিত্রাণ পেতে নূর ইসলাম স্থানীয় প্রশাসনসহ সংশ্লিষ্ট কতৃপক্ষের জরুরী হস্তক্ষেপ কামনা করেছেন।