বৈশাখী রাজনৈতিক ঝড়

জি এম নিউজ জি এম নিউজ

বাংলার প্রতিচ্ছবি

প্রকাশিত: ১২:১২ পূর্বাহ্ণ, এপ্রিল ১৪, ২০১৮ | আপডেট: ১২:১২:পূর্বাহ্ণ, এপ্রিল ১৪, ২০১৮
বৈশাখী রাজনৈতিক ঝড়

বৈশাখ মানেই নতুন বছরের স্পর্শ, পুরানো সকল জরা-জীর্ণতা পিছনে ফেলে নব উদ্যোমে এগিয়ে চলা । চৈত্রের খরতাপে উত্তপ্ত পৃথিবী ঠান্ডা শীতল করার প্রকৃতির প্রয়াস বৈশাখে হয়ে ওঠে ভয়ংকর কাল বৈশাখী ঝড় । বাঙালী রাজনৈতিক অঙ্গনেও জাতীয় নির্বাচনের আগ মুহুর্তে আসে রাজনীতিতে টিকে থাকার লড়াই, একে অপরকে ঘায়েল করার অপকৌশল কিংবা জনগনকে বোকা বানানোর নানা রকম ফন্দি ফিকির প্রলোভনের মহাউৎসব ।

 

জাতীয় নির্বাচন নিকটবর্তী হওয়ায় এই বৈশাখ ভিন্ন মাত্রায় দেশবাসীর কাছে কাল বৈশাখী ঝড়কে ছাপিয়ে রাজনৈতিক ঝড়ে রূপান্তরিত হয়েছে । ব্যানারে ফেস্টুনে ছেয়ে গেছে দেশ । নববর্ষের শুভেচ্ছায় আসছে ভোটের মিষ্টি ঘ্রাণ । দোয়া’র ডালি নিয়ে বসে আছে জনগন । নির্বাচনের আগে এ দোয়ায় অনেক বরকত । নির্বাচনের পরে জনগনের দোয়ার ভান্ডার শূণ্য ও মূল্যহীন মনে করে  জনপ্রতিনিধিরা আর ফিরে দেখেনা । উল্টো জনগনই তাদের দয়ায় ও দোয়ায় কোনরকম বেচে থাকার লড়াইয়ে টিকে থাকে । বারবার একই রকম পরিস্থিতি হওয়ার কারন সম্পর্কে জানতে চাইলে সরকারি বি এম বিশ্ববিদ্যালয় কলেজের সাবেক অধ্যক্ষ শিক্ষাবিদ স.ম ইমানুল হাকিম বলেন, আমাদের শিক্ষার গুণগতমান খুবই নিম্নমানের । আমরা যেহেতু শেখানোর মধ্যেই শিখি তাই পরিবেশ পরিস্থিতি আমাদের যা শেখায় সেখানেই আমরা আটকে যাচ্ছি । ভাবনার জগৎ সুন্দর করতে পারলেই এ বলয় থেকে বেড়িয়ে আসা সম্ভব ।

 

সারা দেশের ন্যায় বরিশাল বিভাগের প্রতিটি জেলায়, প্রতিটি আসনে মনোনায়ন প্রত্যাশীরা নানা কায়দায় দিচ্ছে দৌড় ঝাঁপ । এ দৌড় ঝাঁপে সরকার দলীয় লোকজন বেশী দৃশ্যমান । বিরোধী দলীয় মনোনায়ন প্রত্যাশীরা একটু আড়ালে আবডালে অনেকটা সাবধানে কচ্ছব গতিতে এগিয়ে চলছে । বরিশাল শহরের ঐতিজ্যবাহী বিবির পুকুরের চারপাশে অধিক সংখ্যক ব্যানার ফেস্টুনগুলো পুকুর সহ শহরের প্রকৃত সৌন্দর্যকে ম্লান করে দিচ্ছে । জনগনের ট্যাক্সের টাকায় সিটি কর্পোরেশন বারবার বিবির পুকুর পাড়ের নিরাপত্তা গ্রিল তৈরী করছে, যা নেতাদের ছবি সম্বলিত বড় বড় ফেস্টুনের ভারে পরবর্তীতে ভেঙ্গে যাচ্ছে । হিরন স্কয়ারে ঘুরতে আসা একজন বললেন, এক নেতার জোড়ালো নিষেধ থাকা সত্ত্বেও কিভাবে অতি উৎসাহী কর্মীরা এগুলো স্থাপন করে ।

 

অন্যদিকে একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনকে ঘিরে মনোনয়ন প্রত্যাশীদের ব্যাপক প্রচারণায় সরগরম পটুয়াখালী জেলা । চারটি আসনেই প্রচার প্রচারণায় শহর থেকে গ্রামেগঞ্জে সম্ভাব্য প্রার্থীরা মাঠ পর্যায়ে নিজেদের অবস্থান পোক্ত করতে সাধারণ মানুষের মধ্যে নানা প্রতিশ্রুতি নিয়ে হাজির হচ্ছেন । বৈশাখী শুভেচ্ছায় তৎপর সম্ভাব্য সকল প্রার্থীরা । রাজনৈতিক পর্যবেক্ষকরা মনে করেন, পটুয়াখালীর চারটি আসনেই দলীয় মনোনয়ন পেতে কেন্দ্রীয় ও স্থানীয়দের মধ্যে ব্যাপক প্রতিযোগিতা হবে । সাধারণ মানুষ ও তৃণমূল নেতা কর্মী নির্বাচনকে সামনে রেখে আলোচনা-সমালোচনায় মূখর হাটবাজার, হোটেল রেষ্টুরেন্ট, সভা, রাস্তার মোড় সহ সবখানে । পটুয়াখালীর চারটি আসনের মধ্যে তিনটিতেই আওয়ামী লীগের এমপি । অপরটিতে সদর আসনে ( পটুয়াখালী  ১ – সদর-মির্জাগঞ্জ-দুমকি)মহাজোট শরিক জাতীয় পার্টির মহাসচিব এবিএম রুহুল আমিন হাওলাদার বর্তমান এমপি । এ আসনে একাধিকবার এমপি ছিলেন জেলা আওমীলীগের সভাপতি ও সাবেক ধর্ম প্রতিমন্ত্রী মোঃ শাহজাহান মিয়া । এবার তিনি সহ মনোনয়ন চাইবেন আওয়ামী লীগের তথ্য ও গবেষণা সম্পাদক মোঃ আফজাল হোসেন ।

 

২০ দলীয় জোটের মনোনয়ন প্রত্যাশী জেলা বিএনপির সভাপতি সাবেক স্ব-রাষ্ট্র মন্ত্রী এয়ার ভাইস মার্শাল (অব:) আলতাফ হোসেন চৌধুরী, জেলা বিএনপির সাধারণ সম্পাদক এম এ রব মিয়া , সাবেক সাধারণ সম্পাদক স্নেহাংশু সরকার কুট্টি ও শাহাদাত হোসেন মৃধা । পটুয়াখালী-২ (বাউফল) আসনে মনোনয়ন প্রত্যাশায় এগিয়ে রয়েছেন উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ছয়বারের সংসদ সদস্য জাতীয় সংসদের চিফ হুইপ আ স ম ফিরোজ, আরও মনোনয়ন প্রত্যাশী কেন্দ্রীয় কৃষক লীগের সাধারণ সম্পাদক খোন্দকার সামসুল হক রেজা, জেলা আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক ও বাউফল পৌরসভার মেয়র জিয়াউল হক জুয়েল, সাবেক ছাত্রনেতা জোবায়দুল হক রাসেল ও এস এম ফিরোজ আলম । ।

 

২০ দলীয় জোটের মনোনয়ন প্রত্যাশীদের তালিকায় আছেন, বিএনপির জাতীয় কমিটির সদস্য ও উপজেলা বিএনপির সভাপতি এ কে এম ফারুক আহমেদ তালুকদার, সাধারণ সম্পাদক ও সাবেক এমপি শহিদুল আলম তালুকদার, সাবেক ছাত্রনেতা আনিছুর রহমান আনিচ । পটুয়াখালী-৩ (দশমিনা-গলাচিপা) আসনটিতে মনোনয়ন দৌড়ে এবং আলোচনায় দশমিনা উপজেলার কয়েকজন সম্ভাব্য প্রার্থী এগিয়ে রয়েছেন । জেলা আওয়ামী লীগ নেতা এ্যাড. ইকবাল মাহমুদ লিটন ব্যাপক গণসংযোগ ও প্রচারণা চালিয়ে যাচ্ছেন । এছাড়াও সাবেক ছাত্রনেতা বর্তমান উপজেলা চেয়ারম্যান এ্যাড. সাখাওয়াত হোসেন শওকত , সাবেক বস্র প্রতিমন্ত্রী বর্তমান এমপি আ খ ম জাহাঙ্গীর হোসাইন আওয়ামী লীগ থেকে মনোনয়ন প্রত্যাশী ।

 

২০ দলীয় জোটের মনোনয়ন দৌড়ে সবচেয়ে এগিয়ে রয়েছেন দশমিনা উপজেলার সন্তান ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্রদলের সাবেক সভাপতি বিএনপির কেন্দ্রীয় নির্বাহী সদস্য হাসান মামুন, জেলা বিএনপির সহ-সভাপতি মোঃ গোলাম মোস্তফা, বিএনপি নেতা সাবেক এমপি শাহজাহান খান । পটুয়াখালী-৪ (কলাপাড়া-মহিপুর-রাঙ্গাবালী) আসনটিতে উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি সাবেক পানিসম্পদ প্রতিমন্ত্রী মাহবুবুর রহমান এমপি, সাবেক এমপি মরহুম আনোয়ার হোসেনের ছেলে যুক্তরাষ্ট্র শাখা আওয়ামী লীগের সাবেক সাংগঠনিক সম্পাদক আবদুল্লাহ আল ইসলাম লিটন, কলাপাড়া উপজেলার আওয়ামী লীগের সাবেক সভাপতি আলাউদ্দিন আহমেদ মহাজোট থেকে মনোনয়ন প্রত্যাশী । ২০ দলীয় জোট বিএনপি থেকে মনোনয়ন প্রত্যাশীরা হলেন, কলাপাড়া উপজেলা বিএনপির সভাপতি সাবেক ছাত্রনেতা এ বি এম মোশারফ হোসেন, জেলা বিএনপির সহ-সভাপতি মোঃ মোস্তাফিজুর রহমান, কেন্দ্রীয় স্বেচ্ছাসেবক দলের সহ-সাধারণ সম্পাদক মো. মনিরুজ্জামান মনির ।

 

বৈশাখী ঝড়ে কিংবা আবহাওয়ার পূর্বাভাসে সিগন্যাল একটি গুরুত্বপূর্ণ বিষয় । কিন্তু উত্তপ্ত নির্বাচনী আলোচনায় সম্ভাব্য প্রার্থীদের মুখে শোনা যাচ্ছে লাল নীল সিগন্যালের কথা । আবার কখনও কখনও প্রচারণাকারীদের মূখে শোনা যায়, সবুজ সংকেতেই নির্বাচনে নেমেছি । এদিকে আওয়ামী লীগের সভানেত্রী বর্তমান প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা আওয়ামী লীগের শীর্ষ নেতাদের নিয়ে দেশের বিভিন্ন স্থানে আসছে আগামী জাতীয় সংসদ নির্বাচনকে কেন্দ্র করে জনসভা করে যাচ্ছেন । অন্যদিকে সাম্প্রতিক সময়ে বরিশালে বিএনপির জনসভায় বিএনপির কেন্দ্রীয় শীর্ষ নেতারা বলেছেন, বিএনপি নির্বাচনে যেতে চায় মুক্ত খালেদা জিয়ার নেতৃত্বে নিরপেক্ষ সহায়ক সরকারের অধীনে ।

 

বৃহৎ দুই দলের বিপরীতমূখী এ অবস্থানে কাল বৈশাখী ঝড়ের ন্যায় রাজনৈতিক ঝড়ের শংকায় থাকে সাধারণ জনগন । কাল বৈশাখী ঝড় আসে প্রকৃতির অমোঘ নিয়মে, যেখানে মানুষের কোন হাত নেই । ,কিন্তু রাজনৈতিক ঝড় কিংবা সংকট মনুষ্যসৃষ্ট, যা ইচ্ছে করলেই মানুষ থামাতে পারে । শোধরানোর মাধ্যমে শুভ বুদ্ধির উদয় হোক প্রতিটি মানুষের । রাজনৈতিক স্থিতিশীলতায় সুখী-সমৃদ্ধ বাংলাদেশের স্বপ্ন পূরণ হোক অচিরেই । শান্তিপ্রিয় ভাল মানুষদেরর অভয়রণ্য হোক পুরো বাংলাদেশ ।        ( চলবে…)