কলাপাড়ায় হাইব্রীড আওয়ামী নেতার হাতে শেষ রক্ষা হল না ’নৌকা’র

প্রকাশিত: ৬:৫৯ অপরাহ্ণ, মার্চ ৩১, ২০১৮ | আপডেট: ৬:৫৯:অপরাহ্ণ, মার্চ ৩১, ২০১৮
কলাপাড়ায় হাইব্রীড আওয়ামী নেতার হাতে শেষ রক্ষা হল না ’নৌকা’র

কলাপাড়ার ধানখালী ইউপি নির্বাচনে আ’লীগ এর মনোনয়ন প্রত্যাশী ত্যাগী নেতা-কর্মীদের মধ্য থেকে যুবদল থেকে সদ্য দলে যোগ দেয়া হাইব্রীড আ’লীগ নেতা টিনু মৃধাকে দেয়া দলীয় প্রতীক ’নৌকা’ এর শেষ রক্ষা হল না তার হাতে। ২৯ মার্চ অনুষ্ঠিত ধানখালী ইউনিয়নের স্থানীয় সরকার পরিষদের নির্বাচনে ব্যালট (ভোট) যুদ্ধে লজ্জাজনক পরাজয়ের মধ্য দিয়ে বিজয়ী হয়েছেন আ’লীগ বিদ্রোহী প্রার্থী রিয়াজ উদ্দীন।

নির্বাচন কমিশন সূত্রে জানা যায়, স্থানীয় সরকার পরিষদের ধানখালী ইউপি নির্বাচনে ধানখালী কলেজ ভোট কেন্দ্রে নৌকা প্রতীকের প্রাপ্ত ভোট ১৮২, ঘোড়া প্রতীকের বিজয়ী প্রার্থী প্রাপ্ত ভোট ৪২৬। চালিতাবুনিয়া সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয় কেন্দ্রে নৌকা প্রতীকের প্রাপ্ত ভোট ৯৪, ঘোড়া প্রতীকের প্রাপ্ত ভোট ২৬৬। ধানখালী সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয় কেন্দ্রে নৌকা প্রতীকের প্রাপ্ত ভোট ৪৭৭, ঘোড়া প্রতীকের প্রাপ্ত ভোট ৫০৭। ছালেহিয়া মেমোরিয়াল সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয় কেন্দ্রে নৌকা প্রতীকের প্রাপ্ত ভোট ১০৭, ঘোড়া প্রতীকের প্রাপ্ত ভোট ২৮৫। গাজী এ মন্নান এন্ড হাফিজা মাধ্যমিক বিদ্যালয় কেন্দ্রে নৌকা প্রতীকের প্রাপ্ত ভোট ২১৬, ঘোড়া প্রতীকের প্রাপ্ত ভোট ৭৭০। লোন্দা হাফিজ উদ্দীন মাধ্যমিক বিদ্যালয় নৌকা প্রতীকের প্রাপ্ত ভোট ২২১, ঘোড়া প্রতীকের প্রাপ্ত ভোট ৭৩৭। নিশানবাড়িয়া দাখিল মাদ্রাসা কেন্দ্রে নৌকা প্রতীকের প্রাপ্ত ভোট ৯৫, ঘোড়া প্রতীকের প্রাপ্ত ভোট ২০৭। মরিচবুনিয়া রেড ক্রিসেন্ট সাইক্লোন কেন্দ্রে নৌকা প্রতীকের প্রাপ্ত ভোট ১৫০, ঘোড়া প্রতীকের প্রাপ্ত ভোট ২৬৭। নিশানবাড়িয়া সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয় কেন্দ্রে নৌকা প্রতীকের প্রাপ্ত ভোট ১০৮, ঘোড়া প্রতীকের প্রাপ্ত ভোট ৫১১।

নির্বাচন কমিশন সূত্রে আরও জানা যায়, প্রাপ্ত ভোটের ফলাফলে আ’লীগ এর বিদ্রোহী প্রার্থী মো: রিয়াজ উদ্দীন ঘোড়া প্রতীক নিয়ে ৩৯৭৬ ভোট পেয়ে বিজয়ী হয়েছেন। নৌকা প্রতীক নিয়ে টিনু মৃধা পেয়েছেন ১৬৫০ এবং আ’লীগ এর অপর বিদ্রোহী আ: লতিফ গাজী আনারস প্রতীক নিয়ে পেয়েছেন ১৩১৬ ভোট। ইসলামী শাসনতন্ত্র আন্দোলন’র হাতপাখা প্রতীক নিয়ে মো: হারুন-অর-রশিদ পেয়েছেন ১৫৭৪ ভোট এবং বিএনপি প্রার্থী মো: কামরুজ্জামান কাজল ধানের শীষ প্রতীক নিয়ে পেয়েছেন ৫১৬ ভোট।

এদিকে নির্বাচনের দিন সকাল থেকেই সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে ছড়িয়ে পড়ে ’আজ সারাদিন হাইব্রীড কাউয়ার সাথে ভোট যুদ্ধ’ -সাবেক পানি সম্পদ প্রতিমন্ত্রী মো: মাহবুবুর রহমানের ব্যক্তিগত কর্মকর্তা শামিমুজ্জামান কাসেম এর দেয়া স্ট্যাটাস। এরপর ফেসবুকে চলতে থাকে ’হাইব্রীড কাউয়া ঠেকাও, দলীয় ত্যাগী নেতাকে জেতাও…’ মন্তব্যের ঝড়।

এর আগে যুবদল থেকে আ’লীগে সদ্য যোগ দেয়া টিনু মৃধা রহস্যজনক ভাবে দলীয় মনোনয়ন ’নৌকা’ প্রতীক পাওয়ার পর ’যুবদল নেতার হাতে নৌকা প্রতীক’ শিরোনামে সংবাদ প্রকাশ পায় গনমাধ্যমে। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে ঝড় তোলে বিষয়টি।