অাপনার ক্ষমতার চেয়ারের চারপায়ে উইপোকা ধরেছে : রিজভী

জি এম নিউজ জি এম নিউজ

বাংলার প্রতিচ্ছবি

প্রকাশিত: ৪:১৪ অপরাহ্ণ, মার্চ ২২, ২০১৮ | আপডেট: ৪:১৪:অপরাহ্ণ, মার্চ ২২, ২০১৮

বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব এ্যাডভোকেট রুহুল কবির রিজভী প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে উদ্দেশ্য বলেছেন, আপনার অবৈধ ক্ষমতার মখমলের চেয়ারের চারপায়ে যে উইপোকা ধরেছে সেটি আপনি টের পাচ্ছেন না। পতন কিন্তু বলে কয়ে আসে না। উত্তরের কালবৈশাখী ঝড়ের মতো কখন যে সেই গদি উল্টে যাবে তা অনুধাবণ করতে পারছেন না।

বৃহস্পতিবার (২২ মার্চ) দুপুরে নয়া পল্টনের দলীয় কার্যলয়ে নিয়মিত সংবাদ সম্মেলনে তিনি এসব কথা বলেন।

রিজভী অারও বলেন, উন্নয়নের নামে প্রজাতন্ত্রের কর্মকর্তা-কর্মচারীদেরকে জিম্মি করে আওয়ামী লীগের যেকোন কর্মসূচিতে অংশগ্রহণে বাধ্য করছে। বর্তমানে দেশে গণতন্ত্র স্বরবিদ্ধ, সুশাসন আওয়ামী লীগের চাকায় পিষ্ট। এই গণতন্ত্রহীন দেশে লুটপাটের নামে জনগণের টাকা আত্মসাৎকে সরকার উন্নয়ন বলছে।

সরকারের আজকের কর্মসূচি এক বিকৃত তামাশা বলে দাবি করেন রিজভী, গোটা ঢাকা শহরের রাস্তাঘাট অচল হয়ে গেছে, জনজীবন হয়ে গেছে সম্পূর্ণভাবে স্থবির, ঘন্টার পর ঘন্টা মানুষ রাস্তায় আটকা পড়ে আছে। সরকার বলছে-জনদুর্ভোগ সৃষ্টি হয় এমন কোন কর্মসূচি করতে দেয়া হবে না, অথচ উল্টো সরকারই জনদুর্ভোগ সৃষ্টিতে অগ্রণী ভূমিকা পালন করছে।

কবিতার ভাষায় রিজভী বলেন, সত্যি আমরা আজব দেশে বাস করছি যা শামসুর রহমানের একটি কবিতা মনে পড়লো-আজব দেশের ধন্য রাজা, দেশজোড়া তার নাম, বসলে বলে হাটরে তোরা, চললে বলেন-থাম, থাম, থাম, থাম।

৫ জানুয়ারীর মতো প্রহসণের নির্বাচন করা সম্ভব হবে বলে দাবি করে রিজভী বলেন, না ভেবেই বর্তমান শাসকগোষ্ঠী এখন সবকিছুতেই বেপরোয়া হয়ে জনগণকে ভীত করে একটা গভীর ও সুদূরপ্রসারী নীল নকশা বাস্তবায়নে দ্রুততার সাথে পা ফেলছে। কিন্তু সরকারের উদ্দেশ্যে বলতে চাই-আগামী জাতীয় সংসদ নির্বাচন দলনিরপেক্ষ সরকারের অধীনে অনুষ্ঠিত করতে আপনারা বাধ্য হবেন, আপনাদের সকল চক্রান্ত ও নীল নকশা জনগণের সম্মিলিত শক্তির অভিযাত্রায় প্রতিহত করা হবে।

শিশুপার্কের নাম পরিবর্তনের প্রসঙ্গ টেনে রিজভী বলেন, মহান স্বাধীনতার ঘোষক, বহুদলীয় গণতন্ত্রের প্রবক্তা সাবেক রাষ্ট্রপতি শহীদ জিয়ার রহমান বীর উত্তম এর নাম মুছে ফেলার অপচেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে বর্তমান ভোটারবিহীন সরকার।

সরকার শহীদ জিয়ার নাম মুছে ফেলার ঘৃণ্য উদ্যোগ নিলেও জাতির হৃদয় থেকে মহান স্বাধীনতার ঘোষক জিয়াউর রহমানের নাম মুছে ফেলা যাবে না। তিনি আছেন থাকবেন যুগযুগ ধরে কোটি কোটি মানুষের অন্তরে। আমি বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী দল-বিএনপি’র পক্ষ থেকে সরকারের এধরণের উদ্যোগকে ধিক্কার জানাচ্ছি, নিন্দা জানাচ্ছি এবং তীব্র প্রতিবাদ করছি। এধরণের প্রতিহিংসার উদ্যোগ থেকে সরকারকে সরে আসারও আহবান জানাচ্ছি।