বাউফলে সিঁদ কেটে ঘরে ঢুকে কুপিয়ে খুন, বোনকে গুরুতর জখম

জি এম নিউজ জি এম নিউজ

বাংলার প্রতিচ্ছবি

প্রকাশিত: ১০:৩২ অপরাহ্ণ, মার্চ ১২, ২০১৮ | আপডেট: ১০:৩২:অপরাহ্ণ, মার্চ ১২, ২০১৮
মুজিবুর রহমান,বাউফল (পটুয়াখালী) প্রতিনিধি
পটুয়াখালীর বাউফলে জমিজমা বিরোধের পূর্ব শত্রুতার জের ধরে সিঁদ কেটে ঘরে ঢুকে ডাকাতির বেশে আবুল কালাম খাঁন (৪০) কে কুপিয়ে হত্যা ও তার বোন রিনা বেগম (২৮) কে কুপিয়ে গুরুতর রক্তাক্ত জখম করা হয়েছে। স্থানীয়রা আশঙ্কাজনক অবস্থায় রিনাকে উদ্ধার করে বাউফল হাসপাতালে ভর্তি করে। পরে উন্নত চিকিৎসার জন্য বরিশাল শেরে বাংলা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে প্রেরণ করা হয়েছে। গতকাল রবিবার গভীর রাতে উপজেলার মদনপুরা ইউনিয়নের মাঝপাড়া গ্রামে এ ঘটনা ঘটেছে।
সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানাযায়, উপজেলার মাঝপাড়া গ্রামের জমিজমার নিয়ে পূর্ব শত্রুতার জের ধরে মৃত রাজা খাঁনের ছেলে আবুল কালাম খানের ঘরে গভীর রাতে সিঁদ কেটে ভেতরে প্রবেশ করে একদল দুর্বৃত্ত। তারা ধারালো অস্ত্র দিয়ে আবুল কালাম খানকে এলোপাতারি ভাবে কুপিয়ে জখম করে। এ সময় বোন রিনা বেগম বাঁধা দিতে গেলে তাকেও কুপিয়ে গুরুতর রক্তাক্ত জখম করে।
ঘটনার পর দুর্বৃত্তরা বাড়ির আসবাবপত্র ভাংচুর করে মূল্যবান মালামাল লুট করে নিয়ে যায়। সোমবার ভোরে পুলিশ নিহত কালাম খানের লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য পটুয়াখালী মর্গে পাঠিয়েছে।
নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক প্রতিবেশীরা জানান,কালাম ও তার বোন রিনা বেশ সহজ সরল। বাড়িতে দুই ভাই বোন ছাড়া আর কেউ থাকেন না। রাতে কখন কি হয়েছে কিছুই জানি না। তবে জমিজমা নিয়ে পূর্ব শত্রুতার জের ধরে এ হত্যাকান্ড ঘটতে পারে।
পাশের বাড়ির ফকর উদ্দিন এর স্ত্রী আনোয়ারা বেগম জানান,ভোরে সারা শব্দ না পেয়ে রিনাকে ডাকাডাকি শুরু করি। ঘরের মধ্য থেকে রিনা জানায় এই পরিণতির কথা। তখন এলাকার লোকজন ডাকি। ঘটনাস্থল পরিদর্শন শেষে পটুয়াখালীর অতিরিক্ত পুলিশ সুপার ফারুক হোসেন সাংবাদিকদের বলেন, প্রাথমিকভাবে ঘটনাটি চুরি বা ডাকাতি মনে হচ্ছে না। পূর্ব বিরোধের জের ধরে পরিকল্পিতভাবে এ ঘটনা ঘটতে পারে। আহত রিনা বেগমের অবস্থার উন্নতি হলে তার জবানবন্দি নিয়ে ঘটনার আসল রহস্য বের করা হবে।