বেড়াতে এসে কিশোরী গণধর্ষণের শিকার’’ ট্রাকচালকসহ ৩ জন গ্রেফতার

প্রকাশিত: ৯:০১ পূর্বাহ্ণ, মার্চ ৬, ২০১৮ | আপডেট: ৯:০১:পূর্বাহ্ণ, মার্চ ৬, ২০১৮
বেড়াতে এসে কিশোরী গণধর্ষণের শিকার’’ ট্রাকচালকসহ ৩ জন গ্রেফতার

মাদারীপুরের রাজৈর উপজেলার খালিয়া গ্রামে ১৬ বছরের এক কিশোরী তার বোনের বাড়ি বেড়াতে এসে গনধর্ষণের স্বীকার। এ ঘটনায় ট্রাকচালকসহ ৩ জনকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ।

এলাকাবাসী ও মামলা সুত্রে জানা গেছে, কয়েকদিন আগে ঐ কিশোরী মাদারীপুর জেলার রাজৈর উপজেলার খালিয়া গ্রামে তার এক বোনের বাড়ি বেড়াতে আসে। শনিবার বিকেলে নিজ বাড়ি গোপালগঞ্জ সদরের কংশুর যাওয়ার জন্য রাজৈরের টেকেরহাট বন্দরে বাসের জন্য অপেক্ষা করছিল। এ সময় বোনের পাশের বাড়ির পরিচিত ট্রাকচালক ওবায়দুল শেখ (৩২) ট্রাক নিয়ে গোপালগঞ্জ যাচ্ছিলো। ঐ ট্রাক চালক পথে ঐ কিশোরীকে দেখে ট্রাক থামায়। এসময় কিশোরীকে তার গন্তব্যে পৌছে দেয়ার কথা বলে ট্রাক ওঠায়। পরে ট্রাক চালক মোবাইলে তার দু’সহযোগী শাকিল মাতুব্বর (১৮) ও মিকাঈল শেখকে (১৮) খবর দিয়ে আনে। ট্রাক চালক ওবাইদুর শেখ কৌশলে ট্রাক নিয়ে গোপালগঞ্জ না গিয়ে বিভিন্ন এলাকা ঘুরে রাত সাড়ে ১২ টার দিকে পুনরায় টেকেরহাট বন্দরে ফিরে আসে।

টেকেরেহাটের স্থানীয় কবীরের মাঠে নিয়ে ট্রাক চালক ওবাইদুর শেখ ও তার সহযোগীরা মিলে জোরপূর্বক পালাক্রমে কিশোরীকে ধর্ষণ করে, তারা মাঠে ফেলে রেখে চলে যায়। অসুস্থ অবস্থায় ওই কিশোরী বোনের বাড়িতে যায়। লোকলজ্জার ভয়ে প্রথমে বিষয়টি গোপণ রাখলেও পরে এলাকায় ধর্ষণের ঘটনাটি ছড়িয়ে পড়ে।

নাম না প্রকাশে স্থানীয়রা জানায়, ধর্ষকরা একই এলাকার ও পরিচিত হওয়ায় একটি প্রভাবশালী মহল ধর্ষণের ঘটনা ধামাচাপা দিতে রোববার দিবাগত রাতে খালিয়া গ্রামের জনৈক ব্যক্তির বাড়িতে সালিশ বৈঠক বসে। এ সময় খবর পেয়ে রাজৈর থানা পুলিশ সালিশস্থল থেকে খালিয়া গ্রামের আকুবালি শেখের ছেলে ট্রাক চালক ওবাইদুল, তার সহযোগী একই গ্রামের রুহুল আমীন মাতুব্বর ছেলে শাকিল মাতুব্বর ও খলিল শেখের ছেলে মিকাঈল শেখকে গ্রেফতার করে। এই ঘটনায় থানায় মামলা হয়েছে।

রাজৈর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা ওসি মো. জিয়াউল মোর্শেদ ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, ধর্ষণের ঘটনায় নির্যাতিতার মা বাদী হয়ে ৩ জনকে আসামী করে একটি মামলা করেছেন। আসামীদের গ্রেফতার করা হয়েছে এবং জেল হাজতে প্রেরণ করা হয়েছে।