মাদারীপুরে বিধবা প্রতিবন্ধী নারীকে নির্যাতন

প্রকাশিত: ৪:১২ অপরাহ্ণ, মার্চ ৩, ২০১৮ | আপডেট: ৪:১২:অপরাহ্ণ, মার্চ ৩, ২০১৮
মাদারীপুরে বিধবা প্রতিবন্ধী নারীকে নির্যাতন

মাদারীপুর সদর উপজেলার রাস্তি ইউনিয়নের ৭নং ওয়ার্ডের প্রতিবন্ধী বিধবা নারীকে এলাকার মাদক সন্ত্রাসী হুমায়ন ও তার বাহীনি নিয়ে ফ্লিম স্টাইলে মারধর ও নির্যাতন করার অভিযোগ উঠেছে। স্থানীয় ও স্বজনরা প্রতিবন্ধী নারীকে আহত অবস্থায় উদ্ধার করে মাদাীপুর সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। এঘটনায় সদর মডেল থানায় গতকাল মামলা হয়েছে।

স্থানীয়, স্বজনদের অভিযোগ, প্রতিবন্ধী এসমোতারা তার মাকে নিয়ে রাস্তি ইউনিয়নের ৭ নং ওয়ার্ডের মেম্বর জাফর মাতুব্বরের বাড়ীতে দীর্ঘদিন ধরে ভারা থাকেন। পাশেই প্রতিবন্ধীর আর এক বোন রিক্তা আক্তার তার স্বামী নিয়ে নিজবাড়ীতে থাকেন। গত বুধবার সকালে পাশের বাড়ীর আবেদা বেগমের ভাই, আনোয়ারা বেগমের কাছে দুইশত পাওনা টাকার জন্য চাপ দেয়, এর সুত্রধরে আনোয়ারা বেগম বলে তোদের কাছে আমাদের সাত হাজার টাকা পাওনা আছে তা না দিয়ে উল্টো দুইশত টাকার জন্য আমাদের কেন চাপ দেস। এ নিয়ে কথা কাটাকাটির এক পর্যায় আনোয়ারার পুত্রবধু সিমা আক্তার পাশের বাড়ীর আবেদার ভাই’র পক্ষ নিয়ে শাশুরীর সঙ্গে ঝরগা সৃস্টি করে। একটা পর্যায় সিমা আক্তার তার পাতানো সন্ত্রাসী মাদকাসক্ত খালাতো ভাই হুমায়নকে ফোন দেয়। হুমায়ন তার সন্ত্রাসী বাহিনী নিয়ে, তান্ডব চালিয়ে প্রতিবন্ধী এসমোতারা, মা আনোয়ারা বেগম ও বোন রিক্তা আক্তারকে গুরুতর আহত করে। গুরুতর আহত অবস্থায় প্রতিবন্ধীকে মাদারীপুর সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। হাসপালের মহিলা সার্জারী ওয়াডের ১০নং বেডে চিকিৎসাধীন আছে। প্রতিবন্ধী এসমোতারা মানুষের কাছ থেকে সাহায্য সহযোগীতা নিয়ে জীবন যাপন কারে আসছে।

এ ঘটনার বিষয় রাস্তি ইউনিয়নের চেয়ারম্যান মনির হাওলাদার বলেন, আমি ফোনে ঘটনাটি শুনেছি সন্ত্রাসী যেইহোক তার উপযুক্ত শাস্তি হওয়া দরকার।

এব্যাপারে মাদারীপুর সদর মডের থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা(ওসি তদন্ত) মোহাম্মদ আবু নাঈম বলেন, প্রতিবন্ধী এসমোতারাকে নির্যাতনের ঘটনায় মামলা রুজু করা হয়েছে। আসামীদের ধরার অভিযান অব্যায়হত আছে।