ঢাকা, ||

মুক্তিযোদ্ধাদের ঈদবোনাস প্রাপ্তিতে প্রধানমন্ত্রীর হস্তক্ষেপ কামনা


খুলনা

প্রকাশিত: ৪:০০ অপরাহ্ণ, আগস্ট ২১, ২০১৭

আব্দুল্লাহ আল নোমান

বরগুনা প্রতিনিধি

জাতির শ্রেষ্ঠ সন্তান বীর মুক্তিযোদ্ধাদের ঐকান্তিক প্রচেষ্টায় স্বাধীন হয় এদেশ। কর্মক্ষেত্রে দায়িত্ব পালনের উপর নির্ভর করে পরবর্তিতে সরকারি ভাবে দেয়া হয় বীর শ্রেষ্ট, বীর উত্তম, বীর বিক্রম ও বীর প্রতীক খেতাব। এছাড়াও থাকে সাধারণ মুক্তিযোদ্ধাদের বৃহৎ একটি অংশ। সকল শ্রেণীর মুক্তিযোদ্ধাদের খেতাব অনুযায়ী মুক্তিযোদ্ধা মন্ত্রণালয় ও মুক্তিযোদ্ধা কল্যাণ ট্রাস্ট মাসিক সম্মানী ভাতা ও অন্যান্য সুবিধাদী প্রদান করে থাকেন। অথচ যুদ্ধাহত মুক্তিযোদ্ধাদের ‘ডি’ শ্রেণী ভুক্ত মুক্তিযোদ্ধারা এখনও পর্যন্ত সরকারি গেজেট ও দুই ঈদের বোনাস পাচ্ছেন না। যা সাধারণ মুক্তিযোদ্ধারা পাচ্ছেন অথচ যুদ্ধাহত মুক্তিযোদ্ধারা না পাওয়ায় ক্ষোভ বাড়ছে এসব মুক্তিযোদ্ধাদের মধ্যে।
সম্প্রতি এসব বিষয়ে কথা হয় যুদ্ধাহত কয়েকজন মুক্তিযোদ্ধাদের সাথে। তারা ক্ষোভের সাথে বলেন, বছরের পর বছর গেজেট প্রকাশ নিয়ে মন্ত্রণালয় যেমনটি অনাগ্রহ দেখাচ্ছে, তেমনি তাদের দুই ঈদের প্রাপ্য বোনস থেকে বঞ্চিত করা হচ্ছে। সংশ্লিষ্ট সূত্র জানায়, যুদ্ধাহত মুক্তিযোদ্ধাদের এ শ্রেণী ৯৬ থেকে ১০০ ভাগ, বি শ্রেণী ৬১ থেকে ৯৫ ভাগ, সি শ্রেণী ২০ থেকে ৬০ ভাগ মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের এসব ঈদের বোনাসসহ অন্যান্য সুবিধা পেয়ে আসলেও পাচ্ছেন না ‘ডি’ শ্রেণীর ১ থেকে ১৯ ভাগ যুদ্ধাহত মুক্তিযোদ্ধারা।
নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক কয়েকজন যুদ্ধাহত মুক্তিযোদ্ধা জানান, বিগত ১৪ সালে মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক মন্ত্রণালয় পত্র নং-৪৮.০০.০০০০.০৪.৩৭.৩১২.১৪-১৪৭৫ স্মারকে ‘ডি’ শ্রেণীভুক্ত ১-১৯ ভাগ যুদ্ধাহত বীর মুক্তিযোদ্ধাদের নাম গেজেট করণের লক্ষে তথ্যাদি চেয়ে ছাপানো ফরম দেয়া হয়। যা পুরণ করে নির্ধারিত সময়ের মধ্যে মুক্তিযোদ্ধারা মুক্তিযোদ্ধা কল্যাণ ট্রাস্টে জমা দেয়ার পরও দীর্ঘ সময় অতিবাহিত হলেও তা আজও কার্যকর হয়নি। কি কারণে এতদিনেও মন্ত্রণালয়ের এই উদ্যোগ কাজে আসছে না তা জানা যাইনি।
এদিকে সকল শ্রেণির মুক্তিযোদ্ধারা এ মন্ত্রণালয়ের সকল সুযোগ সুবিধা পেলেও ‘ডি’ শ্রেণির যুদ্ধাহত মুক্তিযোদ্ধারা গেজেটসহ দুটি ঈদ বোনাসের সুবিধা না পাওয়ায় তারা ক্ষোভ প্রকাশ করে বিষয়টি সমাধানের জন্য প্রধানমন্ত্রীর আশু হস্তক্ষেপ কামনা করেছেন।

Top