ঢাকা, ||

ভবনের ছাদে নাজিমউদ্দিন দম্পতির বিশাল বাগান


কৃষি ও প্রকৃতি

প্রকাশিত: ৫:২৭ অপরাহ্ণ, জুন ১৫, ২০১৬

আব্দুল্লাহ আল নোমান

বরগুনা প্রতিনিধি

বাণিজ্যিক ও আবাসিক ভবনের ছাদে বিশাল এক বাগান গড়ে তুলেছেন নাজিমউদ্দিন দম্পতি। ফুল, ফল ও পাতাবাহারীর ওই মিলন মেলা উৎসাহ কাঁড়তে পারে যেকোনো মানুষের। জনাকীর্ণ ঢাকা শহরে যানবাহনের কোলাহলে গুলশান-২ এর এই জায়গাগুলোতে নীচ থেকে শুধু ভবনই চোখে পড়ে, কিন্তু ওপরের এই বিশাল ছাদকৃষি বলে দেয়, কৃষি সবখানেই সম্ভব।

ছাদে কৃষির আয়োজন, তাই বলা হচ্ছে ছাদকৃষি। কিন্তু গাছের প্রতি ভালোবাসায় যখন ২৫ কাঠা আয়তনের ছাদ হয়ে ওঠে অনেকটা প্রাকৃতিক অরণ্যের মতো, তখন উদ্যোক্তাকে বলতেই হয় প্রকৃতিপ্রাণ। ১০ বছর ধরে ফুল ফল ঔষধী গাছ আর পাতাবাহারের সৌন্দর্যে এভাবেই ছাদ সাজাচ্ছেন নাজিমউদ্দিন ও তার স্ত্রী শেফালী বেগম।

শেফালী বেগম বলেন, যখনই সুযোগ পেয়েছি গাছ রোপন করেছি। বাগান সাজিয়েছি। মূলত এটি আমার শখ। গত দশ বছর ধরে রীতিমত একজন কৃষকের মতো যুক্ত রয়েছি এই ছাদকৃষিতে। শেফালী বেগমের মতো এই সৃজনশীল চিন্তা উত্তরাধিকার সূত্রে তার মেয়েরাও পেয়েছেন। প্রবাস জীবনেও ছাদকৃষি করছেন তার সন্তানেরা।

গৃহকর্তা ব্যবসায়ী নাজিমউদ্দিনের কাছে ঘনঅরণ্যে ঘেরা এই ছাদকৃষি ভূমিকা রাখছে গ্রামীণ জনপদের মতো। প্রতিদিন সকালে এখানে হেঁটে তিনি প্রাণশক্তি সঞ্চয় করেন। তাদের ছাদকৃষির আয়োজনে বেশিরভাগই ফুল ও পাতাবাহারের গাছ। এর ভেতরেই রয়েছে ফল ও নানারকমের ঔষধী গাছ।

Top