ঢাকা, ||

আ.লীগ নেতার বিরুদ্ধে কিশোরীকে ধর্ষণের অভিযোগ


অপরাধ

প্রকাশিত: ৭:৩৮ পূর্বাহ্ণ, আগস্ট ১৯, ২০১৭

আব্দুল্লাহ আল নোমান

বরগুনা প্রতিনিধি

সিলেটের জকিগঞ্জে এক কিশোরীকে ধর্ষণের অভিযোগ উঠেছে ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক কাওসার আহমদের বিরুদ্ধে। ধর্ষণের শিকার মেয়েটি এখন সিলেট এমএজি ওসমানী হাসপাতালের ওসিসি’তে চিকিৎসাধীন রয়েছে।

গত ১২ আগস্টের এ ঘটনায় অভিযুক্ত আওয়ামী লীগ নেতা ও তার পরিবারের লোকজনের হুমকির কারণে থানায় মামলা করতে পারছে না বলেও অভিযোগ তুলেছে কিশোরীর স্বজনরা।

ওই কিশোরীর পরিবার ঘটনার বিবরণ দিয়ে জানায়, গত ১২ আগস্ট বিকালে তাদের ঘরে কেউ ছিল না। এ সময় ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক কাওসার আহমদ ঘরে ঢুকে মেয়েটিকে ধর্ষণ করে। সে মাইজকান্দি গ্রামের আব্দুল মুতলিবের ছেলে।

ঘটনার পর কাওসারের পরিবারের লোকজন স্থানীয়ভাবে বিষয়টি নিষ্পত্তি করতে বেশ কয়েকবার গ্রাম্য সালিশ বসায়। এখানে টাকার বিনিময়ে অনেকের মধ্যস্থতায় তারা আপসের চেষ্টা করে। সালিশগুলোতে অংশ নিতে না চাইলেও হুমকি দিয়ে কিশোরীর পরিবারকে নিয়ে আসা হয়। কিন্তু কোনও মীমাংসা হয়নি। উল্টো মেয়েটির স্বজনদের ওপর মিথ্যা অপবাদ চাপিয়ে দেওয়ার অভিযোগ রয়েছে অভিযুক্ত ও তার পরিবারের বিরুদ্ধে।

গ্রামের কয়েকজন ব্যক্তি জানান, কিশোরী ধর্ষণের ঘটনাটি সত্যি। দুই পক্ষের মধ্যে মীমাংসার জন্য একাধিকবার সালিশও বসেছে। এগুলোতে যারা ছিলেন তাদের বেশিরভাগই কাওসারের ঘনিষ্ঠ। তার ভাই সাবেক কাউন্সিলর আমাল আহমদ কাছে দাবি করেন, গ্রাম্য সালিশে ঘটনাটি সমাধান হয়ে গেছে।

এদিকে কিশোরী হাসপাতালে ভর্তি হওয়ার পর তার স্বজনদের সঙ্গে অভিযুক্তর পরিবারের অনেকেই যোগাযোগ করে জানাচ্ছেন, আবার সালিশে বসে ঘটনাটি মীমাংসা করে দেবেন। এজন্য হাসপাতাল থেকে তাদেরকে বাড়িতে চলে যাওয়ার জন্য চাপও দেওয়া হচ্ছে।

কিশোরী ধর্ষণের ঘটনায় আপস বৈঠক হয়েছে বলে স্বীকার করেছেন জকিগঞ্জ পৌরসভার ৯ নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর আতাউর রহমান আতাই। তবে তিনি বলেন, কোনও বৈঠকেই আমি ছিলাম না। যতটুকু জেনেছি বিষয়টি নিষ্পত্তি হয়নি। শুনেছি মেয়েটি ওসমানী হাসপাতালের ওসিসিতে ভর্তি হয়েছে। তারা হাসপাতাল থেকে মামলার প্রস্তুতি নিচ্ছে।

সিলেটের জকিগঞ্জ থানার ওসি হাবিবুর রহমান হাওলাদার বলেন, শুনেছি ধর্ষণের শিকার মেয়েটি সিলেট এমএজি ওসমানী হাসপাতালের ওসিসিতে চিকিৎসাধীন আছে। কিন্তু তার পরিবার এ বিষয়ে থানায় কোনও অভিযোগ করেনি। লিখিত অভিযোগ পেলে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

Top